অশ্বগন্ধা কি | অশ্বগন্ধার উপকারিতা কি |

অশ্বগন্ধা কি | অশ্বগন্ধার উপকারিতা কি |

অশ্বগন্ধা কি

অশ্বগন্ধা নামটির সঙ্গে বেশ পরিচিত রয়েছে যারা আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা করে থাকে অথবা বিকল্প চিকিৎসায় বিশ্বাসী। অশ্বগন্ধা হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ আয়ুর্বেদিক ভেষজ। অশ্বগন্ধা মানুষের মানসিক চাপ বা দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করে থাকে। এটা মূলত ভারতীয় চিকিৎসা শাস্ত্রের ইতিহাসে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য রয়েছে। ভারতীয় চিকিৎসা শাস্ত্রে এটিকে অত্যাশ্চর্য।
অশ্বগন্ধা শব্দটি বা নামটি এসেছে অশ্ব অর্থ ঘোড়া বা গন্ধা বা গন্ধ থেকে। অশ্বগন্ধা মূল মূলত নামটি এসেছে অশ্বগন্ধার মূল বা শিকড় হতে। যা থেকে ঘোড়ার ঘামের গন্ধ এবং প্রসাব এর গন্ধ পাওয়া যায়। বিভিন্ন আয়ুর্বেদিক গবেষকরা মনে করেন যে, এটি গ্রহণ করলে ঘোরার মত শারীরিক শক্তি এবং যৌন ক্ষমতা অর্জন করা সম্ভব বা অর্জন করা যায়।

অশ্বগন্ধার উপকারিতা

অশ্বগন্ধাকে ভেষজ বলা হয়। এই উদ্ভিদটি শরীরের সামগ্রিক উন্নতির জন্য বেশ উপযোগী। অশ্বগন্ধা সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ব্যবহার গুলো নিচে উল্লেখ করা হলো।
  1. মানুষের স্বাস্থ্যের উন্নতিঃ- এটি মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটিয়ে থাকে। অশ্বগন্ধা একটি নামকরা  এডাপ্টোজেন। অশ্বগন্ধা গ্রহণ করলে মানসিক চাপ কমিয়ে আনে এবং অবসাদ ও দুশ্চিন্তা কমে থাকে। আপনাদের যাদের মানসিক দুশ্চিন্তা বেশি থাকে এবং মানসিক চাপ থাকে তারা এটি ব্যবহার করতে পারেন।
  2. ডাইবেটিকস নিয়ন্ত্রণঃ- এটা গ্রহণ করলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা গেছে যে এটা ডায়াবেটিকস প্রতিরোধী হিসেবে খুব ভালো কাজ করে। যাদের ডায়াবেটিকস রয়েছে তাদের রক্তের শর্করা কমিয়ে আনতে সাহায্য করে অশ্বগন্ধা। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে অশ্বগন্ধা।
  3. আর্থারাইটিস প্রতিরোধেঃ- এটা আর্থারাইটিস প্রতিরোধে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অশ্বগন্ধা আমাদের শরীরের ব্যথা এবং ফোলা কমাতে সাহায্য করে। আপনাদের যাদের এমন ব্যথা বা ফোলা রয়েছে তারা এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।
  4. রোগ প্রতিরোধঃ-  অশ্বগন্ধা আমাদের শরীরে বেশ অনেক কয়েক রকম রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। যদিও পরিপূর্ণরূপে রোগ গুলো সঠিক করতে পারে না তবে অনেকটাই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
  5. ঘুমের উপকারিতাঃ- আমাদের অনেকেরই ঘুমের অনেক সমস্যা রয়েছে। আমরা সঠিকভাবে ঘুমাতে পারিনা, ঘুম আমাদের চোখে আসেনা। অসাধারণ ঘুমের জন্য অত্যন্ত উপকারী। অশ্বগন্ধা ব্যবহারের ফলে আমাদের ঘুম ভালো হয় এবং মাথা ঠান্ডা থাকবে। আপনাদের যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে তারা এটি ব্যবহার করতে পারেন।
  6. যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধঃ- অশ্বগন্ধা ব্যবহারের ফলে যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। যেটা অনেকেরই জন্য অনেক প্রয়োজনীয়। এটি শুক্রানু বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আবার যাদের যৌন ক্ষমতা কম রয়েছে তাদের যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  7. চুলের উপকারিতাঃ- অশ্বগন্ধা চুলের জন্য ও অত্যন্ত উপকারী। চুলের পুষ্টি জুগিয়ে থাকে। চুল পড়া কমিয়ে থাকে। আপনাদের অনেকেরই চুল অকারণে পড়ে যাই। আপনারা বুঝেন না কিভাবে চুল পড়া বন্ধ করবেন। অশ্বগন্ধা ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার চুল পড়া কমিয়ে আনতে পারেন।
উপরে উল্লেখিত গুলো ছাড়াও অশ্বগন্ধার আরো অনেক উপকারিতা রয়েছে। যে কারণে অশ্বগন্ধা মানুষ ব্যবহার করে আসছেন। আপনিও আপনার সমস্যার জন্য ব্যবহার করে দেখতে পারেন। কতটা বাস্তবতা রয়েছে এই অশ্বগন্ধাই।

অশ্বগন্ধার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

আমরা জানি যে সব কিছুরই কোন না কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে। আমরা ইতিমধ্যে অশ্বগন্ধার উপকারিতা সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য জানতে পেরেছি। এবার আমরা জানতে চলেছি অশ্বগন্ধার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে।
অশ্বগন্ধা নিয়মিত অনেকদিন ধরে ব্যবহার করলে কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় শ্বাস প্রশস্ত সংক্রান্ত সমস্যা দেখা দিতে পারে এবং অস্বাভাবিক হৃদস্পন্দন সমস্যা দেখা দিতে পারে। জেনে রাখা ভালো যে, গর্ভবতী মহিলারা থেকে দূরে থাকাই উত্তম। আপনারা যারা অশ্বগন্ধা ব্যবহার করেন বা ব্যবহার করতে আগ্রহী তারা অবশ্যই ব্যবহার করার পূর্বে ডাক্তারদের কাছ থেকে পরামর্শ নিবেন। অশ্বগন্ধার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া তেমনটা নেই। তবে অশ্বগন্ধার উপকারিতা রয়েছে অনেক বেশি।

মানবদেহে অশ্বগন্ধার প্রভাব

আমরা অশ্বগন্ধা নামটি সাথে অনেকে পরিচিত। কিন্তু এর উপকারিতা এবং অপকারিতা সম্পর্কে জানিনা। মানবদেহের জন্য অশ্বগন্ধার প্রভাব কেমন তা আমরা বুঝতে পারি না। যে কারণে আজকে আমাদের আর্টিকেলে মানবদেহে অশ্বগন্ধা যে সকল প্রভাব গুলো বিস্তার করে থাকে সেগুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হবে। চলুন জেনে নেই।

অনিদ্রা দূর করে।

  • কোলেস্টেরল দূর করে থাকে।
  • ইস্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে।
  • মাথা ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।
  • যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
  • রক্তে সেক্স হরমোন এর মাত্রা বাড়িয়ে থাকে
  • হার্টের সমস্যা সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে
  • অকালে চুল পড়া থেকে বিরত রাখে
  • সহনশীলতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।
  • ক্ষত সারাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে
  • চোখে সমস্যা থাকলে তা কমাতে সহায়তা করে।
  • শরীরের ওজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে
  • ক্যান্সার প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে
  • মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখে
  • ডাইবেটিস কমাতে বা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়ক
  • চুলকে মজবুত করে
  • মাথায় খুশকি কমাতে সাহায্য করে
  • পেশি মজবুত ও শক্তিশালী করে
  • নানা রকম ইনফেকশন থেকে রক্ষা করে
  • স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে
মানুষের শরীরে অশ্বগন্ধার প্রভাব আমরা উক্ত আলোচনা থেকে বুঝতে পারি। এটি আমাদের শরীরের কতটা উপকার করে থাকে।

অশ্বগন্ধা গাছ চেনার উপায়

আমরা প্রধানত দুই প্রজাতির অশ্বগন্ধা গাছ দেখতে পাই। একটি হল জংলি এবং একটি সাধারণ অশ্বগন্ধা। আমরা মূলত ব্যবহার করে থাকি সাধারণ অশ্বগন্ধা। সাধারণ অশ্বগন্ধা থেকে আমরা ওষুধ সেবন করি। অশ্বগন্ধা গাছ চেনার উপায় হলঃ-
আমরা যে সাধারণ অশ্বগন্ধা ব্যবহার করি তার ফল লাল হয় অনেকটা চেরি ফলের মতো। আবার সাধারণ অশ্বগন্ধার পাতা অনেক পাতলা এবং নরম হয়ে থাকে। আর জংলি অশ্বগন্ধার পাতা অনেকটা মোটা হয়। এভাবে আপনারা অশ্বগন্ধা গাছ চিনতে পারেন।

Leave a Comment