অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা | অস্ট্রিয়া কাজের বেতন কত |

অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা | অস্ট্রিয়া কাজের বেতন কত |
অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নিয়ে আজকের আর্টিকেল সাজানো হয়েছে। আর আপনারা যারা এই সংক্রান্ত তথ্য জানতে আগ্রহী অথবা এই দেশ সম্পর্কে জানতে আগ্রহী তারা পুরো কনটেন্টটি মনোযোগ সহকারে পড়েন। আপনি যদি পুরো কনটেন্ট জুড়ে আমাদের সঙ্গে থাকেন তবে বেশ কিছু তথ্য জানতে পারবেন। যেগুলো আপনার অথবা আপনাদের প্রতিবেশীর উপকারে আসতে পারে। নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা

বর্তমান সময়ে আমরা বিভিন্ন দেশে কাজ করতে যাচ্ছি বা যেতে চাই। বাংলাদেশের অনেক প্রবাসী রয়েছে যারা বিভিন্ন দেশে কাজ করেছেন। আপনি যদি অস্ট্রিয়া যেতে চান বা অস্ট্রিয়ার সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আজকের আর্টিকেল আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আজকের আর্টিকেলে অস্ট্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।
আজকের আর্টিকেল থেকে আপনারা যে সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন তা হলঃ- অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে অর্থাৎ কত টাকা খরচ হয়, অস্ট্রিয়ার কাজের বেতন কত, অস্ট্রিয়ায় কেন যাবেন, অস্ট্রিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হতে পারে, অস্ট্রিয়া গিয়ে বাঙালিরা কেমন ধরনের কাজ করেন এবং কোন কোন কাজের চাহিদা বেশি, অস্ট্রিয়ার মুদ্রার মান কেমন এছাড়াও আরো অন্যান্য তথ্য জানতে পারবেন। এই সকল বিষয়গুলো জেনে নেওয়া যাক।

অস্ট্রিয়া যেতে কত টাকা লাগে

অস্ট্রিয়া যেতে আপনাদের মোট খরচ হবে প্রায় ৮ থেকে ১০ লক্ষ টাকা খরচ হবে। আপনারা অবশ্যই যাওয়ার পূর্বে জেনে নেবেন বর্তমান সময়ে কত টাকা খরচ হচ্ছে এই দেশটিতে যেতে। আপনারা যে এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন সেই এজেন্সি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেবেন।
অথবা আপনারা যদি কোন দালাল বা কোন মানুষের মাধ্যমে যান সে ক্ষেত্রেও তার সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেবেন। বিস্তারিতভাবে না জেনে এতগুলো টাকা অবশ্যই আপনারা কারো হাতে দেবেন না। বাংলাদেশে যে সরকারি বুয়েসেল রয়েছে সেখান থেকে সকল তথ্য সংগ্রহ করতে পারেন। অথবা আপনারা আপনাদের কোন রিলেটিভ এর কাছ থেকে জেনে নিতে পারেন যারা সেই দেশে রয়েছে।

অস্ট্রিয়ায় কাজের বেতন কত

অস্ট্রিয়াতে গিয়ে একজন শ্রমিক প্রাথমিক অবস্থায় গিয়ে প্রতি মাসে আয় করতে পারবেন ৪৫ থেকে ৭০ হাজার বা তারও বেশি টাকা। তবে আপনি যদি যেকোনো কাজে দক্ষ হয়ে থাকেন সে ক্ষেত্রে আপনি আয় করতে পারবেন সত্তর থেকে ১ লক্ষ অথবা ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। আপনারা অস্ট্রিয়া গিয়ে যেকোনো ধরনের কাজ করতে পারবেন।
আপনি যার মাধ্যমে যাবেন তার কাছ থেকে জেনে নিতে পারবেন আপনি সেখানে গিয়ে কত টাকা আয় করতে পারবেন। অথবা আপনারা ভিসা পাওয়ার পরে দেখতে পারবেন সেখানে গিয়ে আপনি কি কাজ করবেন। তাহলে আপনারা বুঝতে পারবেন সে কাজে বেতন কেমন পেতে পারেন। অথবা আপনারা কোম্পানির ওয়েব সাইটে ঢুকে সম্পূর্ণ তথ্য দেখে নিতে পারেন। অথবা গুগলের সার্চ দেওয়ার মাধ্যমে আপনারা আরো অন্যান্য তথ্য দেখে নিতে পারবেন।

অস্ট্রিয়ায় কেন যাব

আপনারা অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন অস্ট্রিয়ায় কেন যাব। বিদেশে কাজ করতে যাওয়ার জন্য আরো অনেক বেশি হয়েছে কেন এ দেশে যাব। আসলে অস্ট্রিয়া ইউরোপের একটি দেশ। আর আমরা সকলেই ইউরোপের যে কোন দেশে যেতে বেশি আগ্রহে থাকে। ইউরোপের দেশগুলো উন্নত হয়ে থাকে। সেই সকল দেশগুলোতে ভালো পরিমাণ অর্থ ইনকাম করা সম্ভব। তার পাশাপাশি ইউরোপের দেশগুলোতে উন্নতমানের জীবন পরিচালনা করা সম্ভব। সবদিক বিবেচনা করে আপনারা এই দেশটিতে কাজ করার জন্য আসতে পারেন।

অস্ট্রিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়

অস্ট্রিয়া যেতে হলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টগুলো অন্যান্য যেকোনো দেশে যেতে হলেই প্রায় প্রয়োজন হয়ে থাকে। আর বিভিন্ন সময় আমরা ডকুমেন্টস এর ভুলের কারণে ভিসা পায় না। যে কারণে আমাদের ডকুমেন্টস বা কাগজপত্রের দিকে নজর দেওয়া উচিত। যে সকল কাগজপত্র বা ডকুমেন্টগুলো অস্ট্রিয়া যেতে প্রয়োজন হবে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলোঃ-
  1. আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  2. পাসপোর্ট এর মেয়াদ থাকতে হবে সর্বনিম্ন ৬ মাস। যেহেতু আপনি কাজের ভিসার জন্য যাচ্ছেন সুতরাং আপনার পাসপোর্টের মেয়াদ ২ বছর এর বেশি থাকা উত্তম।
  3. অতঃপর আপনার পাসপোর্ট সাইজের ছবি প্রয়োজন হবে। অবশ্যই ছবিগুলো সদ্য তোলা হতে হবে।
  4. পুলিশ সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে। অর্থাৎ এখানে তারা দেখবে আপনি বৈধভাবে অথবা আপনার নামে কোন বড় ধরনের কেস আছে কিনা। এখান থেকে তারা বুঝতে পারবে আপনি পালিয়ে যাচ্ছেন নাকি সঠিকভাবে যাচ্ছেন।
  5. ভোটার আইডি কার্ড এবং জন্ম নিবন্ধন এর প্রয়োজন হবে।
  6. স্বাস্থ্য বীমা এর প্রয়োজন হবে।
  7. ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে। অবশ্যই যে ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেখাবেন সেটিতে নিয়মিত লেনদেন থাকতে হবে এবং তার পাশাপাশি শেষ ছয় মাসের স্টেটমেন্ট দেখাতে হবে।
  8. আবেদন ফরম এর প্রয়োজন হবে।
এছাড়াও যদি অন্য কোন ডকুমেন্টস বা কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় আপনি যার মাধ্যমে যাবেন তার কাছ থেকে অথবা সেই এজেন্সি নিয়ে বিস্তারিত তথ্য দেখে নিতে পারেন।

অস্ট্রিয়া গিয়ে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন

অস্ট্রিয়ায় বিভিন্ন ধরনের কাজে রয়েছে। সেখানে গিয়ে বাঙালিরা বিভিন্ন ধরনের কাজ করে থাকেন। বাঙ্গালীরা প্রথম অবস্থায় সেখানে গিয়ে যে সকল কাজ গুলো করেন তা নিম্নে উল্লেখ করা হলোঃ-
  • ড্রাইভিং এর কাজ করেন
  • ক্লিনার এর কাজ করেন
  • কনস্ট্রাকশন সাইটে বিভিন্ন ধরনের কাজ করেন
  • ইলেকট্রিশিয়ানের কাজ করেন
  • মেকানিক্যাল
  • লেবারের কাজ করেন
  • বিভিন্ন হোটেলে কাজ করেন
  • হোটেল ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেন
এছাড়াও আরো অনেক ধরনের কাজ করে থাকেন। আপনারা যখন ভিসা নিয়ে এদেশে কাজ করার জন্য আসবেন তখন আপনারা পূর্ব থেকেই জানতে পারবেন আপনি কোন ভিসায় কি কাজ করার জন্য আসছেন।
আরো জানতে ভিজিট করুন

অস্ট্রিয়াতে কোন কোন কাজে চাহিদা বেশি

অস্ট্রিয়াতে বিভিন্নজন বিভিন্ন ধরনের কাজ করার জন্য যেয়ে থাকেন। অস্ট্রিয়া দেশটি উচ্চ আয়ের একটি দেশ। এই দেশটির অর্থনীতি শক্তিশালী। দেশটি বিভিন্ন খাতে বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়ে থাকেন। এই দেশে যে সকল কাজগুলো চাহিদা বেশি রয়েছে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো। আপনারা এই সকল কাজগুলো করার জন্য এদেশে যেতে পারেন।
  • ড্রাইভিং
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • লেবার
  • কন্সট্রাকশন
  • ক্লিনার
  • মেকানিক্যাল
  • হোটেল
এছাড়াও আরো অন্যান্য কাজের চাহিদা রয়েছে। তবে বাংলাদেশ থেকে যারা যাবেন তারা মূলত এমন ধরনের কাজগুলো করবেন।

বাংলাদেশ থেকে অস্ট্রেলিয়া যেতে কত ঘন্টা সময় লাগে

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে সরাসরি অস্ট্রিয়া যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার সময় লাগবে প্রায় ১২ ঘন্টা ১০ মিনিটের মত। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে আপনি যদি অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়ে না যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনারা সরাসরি ফ্লাইটে সময় লাগবে প্রায় ১২ ঘন্টা। বাংলাদেশ থেকে ভিয়েনা যাওয়ার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় যে ফ্লাইট রয়েছে সেটা ঢাকা-দুবাই-ভিয়েনা এক্ষেত্রে সময় লাগবে ১১ ঘন্টা ৪৫ মিনিট। অথবা সামান্য কমবেশি হতে পারে।

অস্ট্রিয়ার মুদ্রার মান কেমন

অস্ট্রিয়ার মুদ্রার নাম ইউরো যেমন বাংলাদেশের মুদ্রার নাম টাকা। বিভিন্ন দেশের মুদ্রা নাম বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। আর এক ইউরো সমান বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১১৭ টাকা। অবশ্য টাকার মান পরিবর্তনশীল। যে কারণে সব সময় একই রকম মান নাও থাকতে পারে। যেমন বর্তমানে এক ইউরো সমান ১১৭ টাকা এটা পরিবর্তন হয়ে ১৩০, ১১০, ১১৫ ইত্যাদি হতে পারে। অবশ্যই আপনারা google থেকে আপডেট তথ্য জেনে নিতে পারবেন।
অস্ট্রিয়া কাজের ভিসা | অস্ট্রিয়া কাজের বেতন কত |

FAQ

অস্ট্রিয়া কোন মহাদেশে অবস্থিত?

উত্তরঃ– অস্ট্রিয়া ইউরোপ মহাদেশে অবস্থিত।

অস্ট্রিয়ার রাজধানীর নাম কি?

উত্তরঃ– অস্ট্রিয়ার রাজধানীর নাম ভিয়েনা।

অস্ট্রিয়ার আয়তন কত?

উত্তরঃ– অস্ট্রিয়ার আয়তন ৮৩ হাজার ৮৫৫ বর্গ কিলোমিটার।

অস্ট্রিয়ার মুদ্রার নাম কি?

উত্তরঃ-অস্ট্রিয়ার মুদ্রার নাম ইউরো।

অস্ট্রিয়ার ১ টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা?

উত্তরঃ– অস্ট্রিয়ান এক টাকা অর্থাৎ এক ডলার সমান বাংলাদেশের প্রায় ১১৭ টাকা।

অস্ট্রিয়ার ১০০ টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা?

উত্তরঃ– অস্ট্রিয়ার ১০০ ডলার সমান বাংলাদেশের প্রায় ১১,৭৯৮ টাকা।
আরো জানতে ভিজিট করুন

Leave a Comment