অ্যাপেল ওয়াচ কি? কেন কিনবেন? (নতুন ফিচারসহ বিস্তারিত তথ্য)

অ্যাপেল ওয়াচ কি? কেন কিনবেন? (নতুন ফিচারসহ বিস্তারিত তথ্য)

(Apple watch ) নামটি শোনার পর থেকে আমাদের সবার মনে নতুন রকমের আগ্রহ কাজ করছিল। সবার মনেই কৌতুহাল কাজ করছে যে কি আছে ঘড়ির মতো এই জিনিসটিতে?
আসলে অ্যাপেল ও তাদের প্রযুক্তির মাধ্যমে এমন একটি ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস মানুষের সামনে উপস্থাপন করেছে যার মাধ্যমে মানুষ তার কর্মক্ষম এবং নিজেকে সচল রাখার একটি তাগিদ অনুভব করতে পারে।

অ্যাপেল ওয়াচ কি জিনিস?

অ্যাপেল ওয়াচ বা আই ওয়াচ  জিনিসটি এমন একটি ঘড়ির মতো যেটা খুব সহজেই মানুষের হাতের কব্জিতে ব্যবহার করা যায়। এবং আপনি চাইলে অবাক হবেন যে iphone ৫ এবং ৬ মডেলের সাথে এটি কম্ফোর্টেবল।

 অর্থাৎ iphone ৫ এবং ৬ এর সঙ্গে ডাটা লিংক করবে, যেমন iphone এ থাকা ওয়াইফাই এবং জিপিএস ব্যবহার করে ব্যবহারকারীকে লোকেশন এবং লাইক কিছু তথ্য জানাবে। আই ওয়াচ এ আগে থেকেই বেশ কিছু অ্যাপ ইন্সটল করা থাকবে এবং ব্যবহারকারী যদি মনে করে নতুন কিছু অ্যাপ ইন্সটল করতে পারবেন। এছাড়াও এটির মধ্যে এমন কিছু চমকপ্রদ চারটি শক্তিশালী অত্যাধুনিক সেন্টার লাগানো আছে যা মানব দেহের বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে আমাদের আপডেট তথ্য দেবে।

অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে কি কি করা যায়

এটির মধ্যে সত্যিই অনেক ধরনের ফিচার রয়েছে যা মানুষকে আরো অত্যাধুনিক করে তুলেছে। যদিও সকল ফিচার নিয়ে আলোচনা করা সম্ভব নয় তারপরও কিছু সাধারন ফিচারগুলো নিয়ে আলোচনা করছি।

  • ইনকামিং এবং আউটকামিং কল করা
  • মিউজিক শোনা যাবে
  • শর্ট মেসেজ সার্ভিস পাওয়া যাবে
  • ছবি তোলা যাবে

এগুলো ছাড়াও স্পেশাল কিছু ভিসা রয়েছে যেগুলো আপনাদের সাথে একটু আলোচনা করি:

  1. এটির মাধ্যমে আপনি সকালবেলা হাঁটতে হাঁটতে অথবা গাড়ি চালাতে চালাতে ফেসবুক অথবা টুইটারে স্ট্যাটাস দিতে পারবেন, মজার ব্যাপার হলো স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য আপনাকে কখনোই জগিং ট্রাক বা huawei থেকে এক সেকেন্ডের জন্য উদ্দেশ্যে সরানোর প্রয়োজন হবে না।
  1. এটির মধ্যে স siri নামে একটি ফিচার আছে যার মাধ্যমে আপনি ভয়েজে কথা বলে আপনার সাধারণ কাজগুলো সেরে নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পকেট থেকে ফোনটি বের করা লাগবে না।
  1. তবে সবথেকে বড় কথা যেটা সেটি হল এটি মানুষের স্বাস্থ্যগত ব্যাপার সম্পর্কে বেশ সচেতন, কারণ এটির মাধ্যমে আপনি আপনার দেহের হার্টবিট রক্তচাপ ক্যালরি বার ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

অ্যাপেল ওয়াচ এর সুবিধা কি কি?

অ্যাপেল ওয়াচ মানুষদের জীবনচক্র আরও অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে। তবে বিশেষ করে যাদের অ্যাপল ফোন রয়েছে তারাই সর্বাধিক ব্যবহারকারী। তাহলে আসুন আমরা জেনে নেই ২০২৩ সালে এসে অ্যাপেল ওয়াচ আমাদের কি কি সুবিধা দিচ্ছে।

নোটিফিকেশন

এটির মাধ্যমে আমরা আমাদের সঙ্গে থাকা ফোনটিতে যে নোটিফিকেশন গুলো আসে সেটি খুব সহজে দেখতে পাবো। ফোনে যদি কোন নোটিফিকেশন আসে তাহলে সঙ্গে সঙ্গে এই ডিভাইসটি ভাইব্রেশন হয়ে উঠবে। ফলে আমরা দ্রুতই যে কোন কাজের সঙ্গে থাকলেও নোটিফিকেশন দেখতে পাবো।

স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস

এটি ডিভাইসটির মধ্যে এমন কিছু নতুন নতুন ফিচার রয়েছে যার মাধ্যমে যে সকল মানুষগুলোর স্বাস্থ্য বিষয় সচেতন তাদের খেয়াল রাখবে। আপনার দৈনন্দিন কিছু কাজের উপর নির্দিষ্টভাবে ট্র্যাকিং করবে এ ডিভাইসটি। আপনি কোন দিন কতটুকু সময় ঘুমালেন এবং শরীর চর্চা করেন তারও একটি খুঁটিনাটি হিসাব দিতে পারবে।

অ্যাপেল পে

এই সুবিধাটি আমাদের দেশে খুব একটি বেশি কার্যকর না হলেও বাহিরের দেশগুলোতে এর ব্যবহার সর্বাধিক। কারণ আমাদের দেশের ডেবিট ক্রেডিট কার্ডগুলোর সর্বাধিক ব্যবহার না হলেও উন্নত দেশগুলোতে এটির ব্যবহার অনেক বেশি। এবং এই ডিভাইসটির মাধ্যমে এই কাজটি অনেক দ্রুত করা যাবে।

অ্যাপেল ওয়াচ  কি ? কেন কিনবেন?

কি আছে নতুন অ্যাপেল ওয়াচে?

নতুন এই ডিভাইসটিতে এমন কিছু সুবিধা আছে যা মানুষদের আরো সচেতন এবং গতিশীল করতে সাহায্য করবে। আসুন আমরা জেনে নেই নতুন এই অ্যাপোলো ডিভাইসের মাধ্যমে আমরা কোন সুবিধা গুলো সব থেকে বেশি পেতে যাচ্ছি।

পরিস্কার পরিচ্ছন্ন

হ্যাঁ বন্ধুরা যা শুনছেন সেটাই সঠিক। করোনা কালীন সময়ের সবচেয়ে বড় বাধা ছিল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা। ঠিক সেই কথাটি মাথায় রেখে এই ডিভাইসটিতে হ্যান্ড ওয়াশিং ডিটেকশন ফিচার দেওয়া হয়েছে, যার মাধ্যমে ইউজার বাহির থেকে বাসায় আসলে সঙ্গে সঙ্গে হাত ধোয়া এবং নিজেকে পরিচ্ছন্ন রাখার কথা মনে করিয়ে দেবে।

উন্নত সাউন্ড কোয়ালিটি

সবথেকে বড় পয়েন্ট হল ট্রান্সলেশন ফিচার, যার কারণে এটির মধ্যে উন্নত সাউন্ড সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটি সঠিকভাবে সাউন্ড মনিটরিং করবে এবং হেডফোনে বাজানোর শব্দের মাত্রা যেন অতিরিক্ত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবে।

স্লিপিং টেকিং

প্রতিষ্ঠানটি জানায় নতুন এই ফিচারটির মধ্যে এমন একটি সিস্টেম রাখা হয়েছে যার মাধ্যমে একজন ইউজার তার দৈনন্দিন ঘুম এবং আনুষঙ্গিক কাজের খুঁটিনাটি হিসেব রাখতে পারবেন।

হাজারো অ্যাপ

আমরা অনেকেই মনে করছি যে এটি ব্যবহার করার জন্য আইফোন বাধ্যতা জনক। কিন্তু নতুন ফিচার এর মাধ্যমে আমরা খুব সহজেই iphone ছাড়াও ব্যবহার করতে পারব। ডিভাইসটিতে রয়েছে প্রায় বিশ হাজারের অধিক অ্যাপ। যা দিয়ে এটি ব্যবহার করা অনেকটা সহজ হবে।

Leave a Comment