আর্মেনিয়া কাজের ভিসা | আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা লাগে |

আর্মেনিয়া কাজের ভিসা  আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা লাগে

আজকের আর্টিকেলে আমরা আর্মেনিয়া কাজের ভিসা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নিয়ে আলোচনা করব। আপনারা অনেকে রয়েছেন যারা বাইরের দেশের কাজ করতে যেতে চান। তাদের জন্য আর্মেনিয়া সম্পর্কে জানা উচিত। আর্মেনিয়া ইউরোপের একটি দেশ। আর আমরা সকলেই ইউরোপ কান্ট্রিতে যেতে চাই।

আপনারা যারা আর্মেনিয়া কাজ করতে যেতে চান অথবা আর্মেনিয়ার সম্পর্কে জানতে চান আজকের আর্টিকেল তাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সুতরাং পুরো কনটেন্ট জুড়ে আমাদের সঙ্গে থাকুন ইনশাআল্লাহ আপনারা আর্মেনিয়া সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে পারবেন।

আর্মেনিয়া পরিচিতি

আর্মেনিয়া এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত একটি দেশ। অনেকেই জানেন আর্মেনিয়া ইউরোপ মহাদেশ অবস্থিত। আসলে আর্মেনিয়া ইউরোপের কাছাকাছি এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত। যে কারণে অনেকে এশিয়া মহাদেশ আবার অনেকে ইউরোপ মহাদেশ এ অবস্থিত বলে জেনে থাকে। আর্মেনিয়ার রাজধানীর নাম ইয়েরিভান। আর এই ইয়েরিভান আর্মেনিয়ার বৃহত্তম নগরী। দেশ টি ১৯৯১ সালে স্বাধীনতা লাভ করে। দেশের আয়তন ২৮,৮০০ বর্গকিলোমিটার। আর্মেনিয়ার মুদ্রার নাম দ্রাম।

আর্মেনিয়া কাজের ভিসা

আর্মেনিয়া কাজের ভিসা নিয়ে আজকের আর্টিকেল সাজানো হয়েছে। আজকে আর্টিকেল থেকে আপনারা আর্মেনিয়া সম্পর্কে অনেক জানা-অজানা তথ্য জানতে পারবেন। যে সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন তা হলঃ-
আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা লাগে, আর্মেনিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়, আর্মেনিয়া কাজের বেতন কত, আর্মেনিয়ার কাজের ভিসা নিয়ে যাওয়া সম্ভব কিনা, আর্মেনিয়ার মুদ্রার নাম এবং মুদ্রার মান আর অন্যান্য বিষয় সহ জানতে পারবেন। চলুন এই সকল বিষয়গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

আর্মেনিয়াকে ইউরোপ মহাদেশের দেশ মনে করা হয় কেন

আসলে আর্মেনিয়া এশিয়া মহাদেশ অবস্থিত। কিন্তু আর্মেনিয়ার কালচার প্রায় ৭৫ ভাগ ইউরোপ দেশগুলোর সাথে মিল রয়েছে। যে কারণে অনেকেই ভুল ভাবে আর্মেনিয়াকে ইউরোপের দেশ বলে থাকে। আর্মেনিয়াতে আপনারা ইউরোপের মত ৭০ শতাংশ লাইফস্টাইল উপভোগ করতে পারবেন।

আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা লাগে

আর্মেনিয়া যেতে চার থেকে সাড়ে চার লক্ষ টাকা খরচ হবে। দালাল অথবা অনেক এজেন্সি আর অতিরিক্ত টাকা ধরতে পারে। তবে অবশ্যই আপনারা সতর্কতার সাথে সবকিছু ঠিক করবেন। আপনারা চার থেকে সাড়ে চার লক্ষ টাকার মধ্যে দিয়ে আপনারা সকল প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে বাংলাদেশ থেকে আর্মেনিয়া যেতে পারবেন।

আর্মেনিয়া কাজের বেতন কত

আর্মেনিয়াতে বর্তমান সময়ে কাজের বেতন দেওয়া হয়ে থাকে ৪৫ থেকে ৭০ হাজার বা তারও বেশি টাকা পর্যন্ত। তবে বিভিন্ন কাজের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন রকম বেতন নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। সুতরাং আপনি যেই কাজের জন্য যাবেন অবশ্যই সেই কাজে কত টাকা মাসিক ইনকাম করতে পারবেন সেটা জানা আপনার জন্য জরুরী।
যেমন, আপনি যদি কাজ করেন সে ক্ষেত্রে আপনি প্রতি মাসে ৪৫ থেকে ৫৫ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। এই কাজটি অত্যন্ত সহজে একটি কাজ। আপনি যদি ইলেকট্রিশিয়ান এর কাজ করতে জানেন সে ক্ষেত্রে আপনি সেখানে গিয়ে প্রতি মাসে আয় করতে পারবেন প্রায় ৬৫ থেকে ৭০ হাজার টাকা।
আবার আপনি যদি সেখানে গিয়ে কনস্ট্রাকশনের কাজ করেন। কনস্ট্রাকশনের বিভিন্ন রকম সেক্টর থাকে। তবে এভারেজ ভাবে আমরা বলতে পারি ৪৫ থেকে ৬০ হাজার টাকা বেতন পাবেন। এভাবে বিভিন্ন কাজের উপর নির্ভর করে বেতন কমবেশি হয়ে থাকে।

আর্মেনিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন

আর্মেনিয়া যেতে হলে আপনার বেশ কিছু কাগজপত্র বা ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টগুলো অবশ্যই বৈধ হতে হবে। ডকুমেন্টসের কারণে আমরা অনেক সময় ভিসা পায় না। তাই ডকুমেন্টস এর দিকে আমাদের নজর রাখা উচিত। চলুন জেনে নি আর্মেনিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়।
  • প্রথমত একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • পাসপোর্টে মেয়াদ থাকতে হবে সর্বনিম্ন ৬ মাস। যেহেতু আপনি কাজের ভিসায় যাচ্ছেন দুই বছর এর বেশি মেয়াদ থাকা উত্তম।
  • এনআইডি কার্ড এবং জন্ম নিবন্ধন এর প্রয়োজন হবে।
  • মেডিকেল রিপোর্ট।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
  • করোনা টিকা কার্ড।
  • পূরনকৃত ফর্ম।
মূলত এই সকল ডকুমেন্টস গুলো প্রয়োজন হয়ে থাকে। আপনি যে মাধ্যমে যাবেন অর্থাৎ যে এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন সেখান থেকে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

আর্মেনিয়া ভিসা কিভাবে পাবেন

আর্মেনিয়া ভিসা এজেন্সি ভারতের দিল্লিতে রয়েছে। আপনারা যদি যেতে চান সেখান থেকে সকল প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে নিতে পারেন। সেখান থেকে সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে আপনি বাংলাদেশ থেকে খুব সহজেই আর্মেনিয়া যেতে পারবেন। অথবা আপনারা চাইলে বাংলাদেশে যে বোয়েসেল রয়েছে সেখানে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন।

আর্মেনিয়াতে আপনারা কি কি কাজ পাবেন

বাংলাদেশ থেকে যদি আপনি আর্মেনিয়াতে কাজ করতে যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনারা সেখানে গিয়ে বেশ কয়েক রকম কাজ করতে পারবেন। যে সকল কাজগুলো আপনারা করতে পারবেন তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
  • কনস্ট্রাকশন সাইটে কাজ।
  • ফুড ডেলিভারি।
  • ফ্যাক্টরি।
  • কার ওয়াশিং।
  • ড্রাইভিং।
  • ফ্যাক্টরি কাজ।
  • ওয়েল্ডার।
  • কার্পেন্টার।
  • সুপার শপ।
  • রেস্টুরেন্ট।
  • ক্লিনার।
  • ইলেকট্রিশিয়ান।
আপনারা এই সকল কাজ গুলো করতে পারবেন আর্মেনিয়া গিয়ে। এছাড়াও আর অন্যান্য কাজ রয়েছে। তবে এই সকল কাজগুলোর প্রতি আপনি যদি দক্ষ হয়ে থাকেন সে ক্ষেত্রে আপনারা প্রতি মাসে ভালো পরিমাণ অর্থ আয় করতে পারবেন কাজগুলো করে।

বাংলাদেশীদের জন্য আর্মেনিয়াতে কয় ধরনের ভিসা চালু আছে

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে আর্মেনিয়াতে যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনারা ৩ ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন। অর্থাৎ বাংলাদেশীদের জন্য আর্মেনিয়ার ৩ রকম ভিসা চালু আছে। একটি হচ্ছে স্টুডেন্ট ভিসা এবং আরেকটি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা এবং টুরিস্ট ভিসা। আপনারা এই ৩ ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন।

আর্মেনিয়াতে কোন ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে যাওয়া সহজ

আপনারা বেশ কয়েক রকম ক্যাটাগরি নিয়ে আর্মেনিয়াতে যেতে পারবেন। তবে সবচেয়ে ভিসা পাওয়ার সহজ হয় স্টুডেন্ট ভিসার ক্ষেত্রে। দেখা যায় সব সময় স্টুডেন্ট ভিসা নিয়েই আর্মেনিয়াতে মানুষ বেশি যেয়ে থাকে। আর আপনারা যদি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে চান সে ক্ষেত্রে ভালো এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।

আর্মেনিয়াতে কোন ধর্মের মানুষ বেশি রয়েছে

আর্মেনিয়ার চারপাশে যে সকল দেশগুলো রয়েছে প্রায় দেশগুলো মুসলিম প্রধান। সুতরাং অনেকেই ভাবতে পারেন আর্মেনিয়াতে ও মুসলিম রয়েছে। আসলে আর্মেনিয়া খ্রিস্টান প্রধান একটি দেশ। আর্মেনিয়াতে প্রায় ৯৮% খ্রিস্টান রয়েছে।

আর্মেনিয়া যেতে কত সময় লাগে

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে আর্মেনিয়া যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার সময় লাগবে তিন থেকে চার মাস। এর মধ্যে সকল প্রসেসিং কমপ্লিট হয়ে যাবে। তারপরে আপনারা খুব সহজেই আর্মেনিয়া যেতে পারবেন।

আর্মেনিয়ার মুদ্রার নাম কি

আর্মেনিয়ার মুদ্রার নাম আর্মেনিয়া ড্রাম। যেমন বাংলাদেশের মুদ্রার নাম টাকা তেমনি ভাবে আর্মেনিয়ার মুদ্রার নাম ড্রাম। আর আর্মেনিয়ার মুদ্রার মান বাংলাদেশের  মুদ্রার মানের চেয়ে কম। অর্থাৎ বাংলাদেশের মুদ্রার মান আর্মেনিয়ার মুদ্রার মানের চেয়ে বেশি। বাংলাদেশের এক টাকা সমান আর্মেনিয়ার প্রায় ৩ টাকা ৫১ পয়সা। অবশ্য মুদ্রার মান পরিবর্তনশীল। যে কারণে সব সময় একই রকম মান নাও থাকতে পারে।
আরো জানতে ভিজিট করুন
আর্মেনিয়া কাজের ভিসা  আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা লাগে
আর্মেনিয়া কোন মহাদেশে অবস্থিত?
উত্তরঃ– আর্মেনিয়া এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত।
আর্মেনিয়ার রাজধানীর নাম কি?
উত্তরঃ– আর্মেনিয়ার রাজধানীর নাম ইয়েরিভান
আর্মেনিয়া যেতে কত টাকা খরচ হয়?
উত্তরঃ– আর্মেনিয়া যেতে চার থেকে সাড়ে চার লক্ষ টাকা খরচ হয়।
আর্মেনিয়া যেতে কত ঘন্টা সময় লাগে?
উত্তরঃ– বাংলাদেশ থেকে আর্মেনিয়া সরাসরি বিমানে যেতে সময় লাগে প্রায় ৬ ঘন্টা ১৫ মিনিট।
আর্মেনিয়ার এক টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা?
উত্তরঃ– আর্মেনিয়ার এক টাকা সমান বাংলাদেশের ০.২৮ টাকা।
আর্মেনিয়ার ১০০ টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা?
উত্তরঃ– আর্মেনিয়ার ১০০ টাকা সমান বাংলাদেশের প্রায় ২৮.৪৫ টাকা।
আরো জানতে ভিজিট করুন

Leave a Comment