ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায় | (সকল ভয় করবে জয়)

ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায় |
ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায় সম্পর্কে আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে এই আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করব। আমরা ইংরেজিকে অনেক ভয় পাই। আমরা ভাবি ইংরেজি ভাষা শেখা অনেক বেশি কঠিন। কিন্তু আমাদের এটা ভুল ধারণা। ইংরেজি ভাষা অত্যন্ত সহজ একটি ভাষা। যারা প্রথম থেকে সুন্দরভাবে ইংরেজি শিখবে তারা খুব সহজেই ইংরেজিতে কথা বলতে পারবে, লিখতে পারবে, সবকিছু করতে পারবে।
আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন না ইংরেজি ভাষার চেয়ে বাংলা ভাষা মানে যেটা আমাদের মাতৃভাষা সেটা অনেক বেশি কঠিন। ইংরেজি ভাষাতে তেমন নিয়ম কানুন ব্যবহার হয় না। কিন্তু বাংলা ভাষাতে অনেক নিয়ম রয়েছে। আমরা যেহেতু বাংলা ভাষা বলতে পারি সুতরাং ইংরেজি ভাষাও আমরা পারব। তবে ইংরেজি ভাষার প্রতি যে ভয়টি আমাদের কাজ করে সেই ভয়টিকে জয় করতে হবে। ইংরেজি বানান শেখার সহজ নিয়ম সম্পর্কে নিচে উল্লেখ করা হলো।

ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায়

আমরা বাচ্চাদের পড়ানোর জন্য অথবা নিজে শেখার জন্য জানতে চাই ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায় সম্পর্কে। আসলে ইংরেজি বানান শেখা অত্যন্ত সহজ। বাংলাতে ৩৯ টি অক্ষর রয়েছে সেক্ষেত্রে ইংরেজিতে মাত্র ২৬ টি অক্ষর রয়েছে।
আমরা যদি বাংলা ভাষার অক্ষর গুলো মনে রাখতে পারি তবে প্রায়ই তার অর্ধেক ইংরেজি অক্ষর গুলো কেন মনে রাখতে পারব না। আমাদের মধ্যে ইংরেজি নামটি শুনলেই ভয় কাজ করে। যে কারণে আমরা ইংরেজি থেকে পিছিয়ে রয়েছি। আমাদের ভাবতে হবে যে ইংরেজী শিক্ষা অত্যন্ত সহজ। তাহলে আমরা খুব দ্রুত সময়ে ইংরেজির উপর দক্ষ হতে পারব।

ভেঙে ভেঙে শব্দ মুখস্ত করা

ইংরেজি বানান শেখার জন্য প্রথম অবস্থায় আপনাকে উচ্চারণগুলো ভেঙে ভেঙে পড়তে হবে। সেক্ষেত্রে আপনি ইংরেজি অক্ষর বা শব্দগুলো খুব সহজে আয়ত্ত করতে পারবেন। তাই ইংরেজি পড়ার সময় আপনারা প্রথম অবস্থার দিকে ভেঙে ভেঙে পড়তে চেষ্টা করবেন। শব্দকে যদি আপনি বিভিন্ন অংশে ভাগ করে নিয়ে উচ্চারণ করেন তবে আপনার কাছে অনেক সহজ লাগবে।

শব্দ করে পড়া

আপনি প্রথম অবস্থায় ইংরেজি শেখার ক্ষেত্রে জোরে জোরে পড়বেন। এতে করে আপনার মস্তিষ্ক একদিকে কাজ করবে এ কারণেই আপনার খুব দ্রুত ইংরেজি মুখস্ত হবে। উচ্চ শব্দে পড়লে আমাদের শরীরের চোখ, মুখ, কান এ অঙ্গগুলো একসঙ্গে কাজ করে। যে কারণে আমাদের মস্তিষ্ক এটাকে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভাবে এবং স্মৃতিতে জমা রাখে।

পড়ার সময় ভুল মনে হলে চেক করা

প্রথম অবস্থায় আপনি যখন ইংরেজি পড়বেন তখন হালকা মুখস্ত হবার পরে কিছু কিছু ভুল মনে হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনি সেগুলো চেক করে নেবেন তাতে করে মস্তিষ্ক সেটিকে আরো ভালোভাবে মনে রাখবে। তাই ভুল কিছু দেখলে এড়িয়ে না গিয়ে সেটা সমাধান করুন। সমাধানকৃত জিনিসগুলো মস্তিষ্ক ভালোভাবে সংরক্ষণ করে রাখে।
ইংরেজি বানান শেখার সহজ উপায় |

ইংরেজি বানানের নিয়ম

ইংরেজি বানানের জন্য নিয়মের বিকল্প নেই কিন্তু আমাদের তা প্রয়োগ করতে হবে। ইংরেজিতে অনেক রুলস রয়েছে সবগুলোই আমাদের মুখস্ত রাখতে হবে এমনটা নয়। যেগুলো আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রয়োজন এবং আমাদের বিশেষ ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয় সেগুলো মনে রাখলে চলবে। ইংরেজি বানানের জন্য নিচে কয়েকটি রুলস দেওয়া হলোঃ-
  • প্রত্যেকটি ওয়ার্ড এর মধ্যে একটি করে ভাওয়াল থাকে। ইংরেজিতে ভাওয়াল পাঁচটি, A, E, I, O, U
  • আমরা অনেক সময় সি এর উচ্চারণ কে বা এস এর মত করে থাকি। যেমন, City…. সিটি এবং Cat…. ক্যাট আমরা এখানে দেখতে পাচ্ছি যে প্রথমটি এস এর মতো উচ্চারিত হয়েছে এবং দ্বিতীয়টি কে এর মত উচ্চারণ হয়েছে।
  • ইংরেজিতে Q এর পরে সব সময় U হয়।
  • অনেক সময় H এর উচ্চারণ O এর মত হয়ে থাকে, যেমন, Honest…. অনেস্ট।

ইংরেজি বানান শেখার বই

বিভিন্ন লাইব্রেরীতে ইংরেজি শেখার জন্য বই রয়েছে। যে সকল বইগুলোর সাহায্যে আপনারা ইংরেজি বানান শিখতে পারেন। বানান শেখার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হলো ভেঙে ভেঙে উচ্চারণ করা। মানে একটি পুরো ওয়ার্ড একসঙ্গে পড়ার চেষ্টা না করে ছোট ছোট ভাবে ভাগ করে উচ্চারণ করা। আর সবচেয়ে বিশেষ দিক হলো আমাদের সর্বদাই মনে রাখতে হবে ইংরেজি শেখা অত্যন্ত সহজ।
তাছাড়া আমরা কখনোই ইংরেজি শিখতে পারব না। ইংরেজি বানান শেখার জন্য আমাদের মেধাকে কাজে লাগাতে হবে। যে সকল বইগুলো লাইব্রেরীতে পাওয়া যায় সেই সকল বইগুলোতে প্রথম থেকে পড়া শুরু করতে হবে। যদিও প্রথমদিকে অত্যন্ত সহজ লাগবে বইয়ের পড়াগুলো তবুও আমাদের প্রথম থেকে মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। সহজ বলে প্রথম থেকে না পড়লে আমরা বেশ কিছু টপিক এড়িয়ে যেতে পারি।
সে ক্ষেত্রে আমাদের পরবর্তী সময়ে ওগুলোর প্রয়োজন হলে আমরা সঠিকভাবে উচ্চারণ করতে পারবো না। তাই আমাদের প্রচুর পরিমাণে বই পড়া উচিত ইংরেজি শেখার জন্য। আমরা ইংরেজি শেখার বাইরেও যে কোনো সময় যেগুলো পড়েছি সেগুলো প্রয়োগ করার চেষ্টা করব। সেক্ষেত্রে আমাদের আরও দ্রুত ইংরেজি বানান শেখাতে সাহায্য করবে।

Leave a Comment