উইন্ডোজের কিছু সমস্যা ও তা সমাধানের উপায়

উইন্ডোজের কিছু সমস্যা ও তা সমাধানের উপায়

আমরা সকলেই জানি যে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় সফটওয়্যার তৈরি প্রতিষ্ঠান হল “মাইক্রোসফট”। এবং মাইক্রোসফটের যে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে তা বর্তমান সময়ের প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ তাদের নিজস্ব কম্পিউটারে ব্যবহার করে আসছে। 
এবং এই ধরনের সফটওয়্যার গুলো নিয়মিত আপডেট হওয়ার কারণে আমরা প্রতিনিয়ত বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকি। আজকে ঠিক এমনই কিছু সমস্যার সমাধান নিয়ে আমাদের এই কন্টেন্টিটি সাজানো হয়েছে।

অটো আপডেট সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান

উইন্ডোজের অটো আপডেট বিষয়টি আমাদের সবার কাছে একটি বিরক্তিকর বিষয় বলে মনে হয়। কারণ আমরা সবাই জানি আমরা কাজ করার পর যখন কম্পিউটারটি বন্ধ করতে যায় ঠিক সেই সময়ে উইন্ডোজ আপডেট এর কারণে আরো দশ থেকে বিশ মিনিট অপেক্ষা করতে হয়।
সব থেকে বড় সমস্যাটি হল এই আপডেটটি হওয়ার সময় আপনি যদি পিসিতে পাওয়ার বাটন অফ করে দেন তাহলে আপনার উইন্ডোজ টি নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। আসুন দেখে নেই কিভাবে এই অটো আপডেট সিস্টেমটি অফ করতে হয়।
  1. সর্বপ্রথম কম্পিউটার রাইট আইকনে ক্লিক করুন
  2. এরপর ম্যানেজ অপশনে যান
  3. এরপর সার্ভিস অপশনে ক্লিক করুন
  4. এরপর windows update লেখাটি খুঁজে বের করুন
  5. এখন স্টার্টআপ টাইপ এ গিয়ে লিট ডিজেবল করে স্টপ এ ক্লিক করার মাধ্যমে (okay) ক্লিক করতে হবে

ঠিক এভাবে আপনি আপনার কম্পিউটার অটো আপডেট সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

বাংলা ফ্রন্ট কাজ না করা

নতুন উইন্ডোজ আপডেট করার পর আমরা অনেকেই বাংলা লেখালেখির করার সময় বেশি কিছু সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি, এবং আমরা উক্ত সমস্যার সমাধান করতে হিমশিম খেয়ে যাচ্ছি।

সমস্যাটির সমাধান করতে হলে প্রথমে আপনাকে অভ্র কিবোর্ড টি ইন্সটল করতে হবে। পরবর্তীতে কন্ট্রোল প্যানেল থেকে (language) অপশনটি সিলেক্ট করুন। এরপর ( add a language) থেকে বাংলা ( বাংলাদেশ ) সিলেক্ট করে এড করে নিন তাহলেই কাজ শেষ।
এরপর কম্পিউটারের টাস্কবারে যেতে হবে, টাস্কবারে গিয়ে ( বাং) শব্দটিতে ক্লিক করুন। তারপর (Language perference) এ ক্লিক করুন। সেখান থেকে বাংলা সিলেক্ট করে download অপশনে ক্লিক করুন । ডাউনলোড করা শেষ হলে ( languag park) ইন্সটল হয়ে যাবে।

কম্পিউটার পিসির ধীরগতি

বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির সময় আমাদের প্রত্যেকের কাছেই কম্পিউটার একটি অপরিহার্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস। বর্তমান সময়ের এক বিপুল অংশ এই কম্পিউটারের উপর নির্ভরশীল। কিন্তু এই কম্পিউটার যদি হয় ধীরগতি তাহলে কাজ করতে কেমন অস্বস্তিদায়ক মনোভাব সৃষ্টি হবে একবার ভাবুন। তাই আসুন কিভাবে কম্পিউটারের দীর্ঘতি সমাধান করা যায় সে বিষয়ে কিছুটা জানার চেষ্টা করি।
  • পিসিতে সকল প্রকার থার্ড পার্টি অ্যাপ বন্ধ করতে হবে। এবং পিসির ডিফেন্ডার নিয়মিত আপডেট রাখতে হবে।
  • ডিস্ক ক্লিন আপ এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আপনার উইন্ডোজের থাকার টেম্পোরারি ফাইল লক ফাইল মেমোরি ডাম্প সহ অপ্রয়োজনীয় ফাইলগুলো ডিলিট করে জায়গা খালি করতে পারেন।
  • স্টার্ট অ্যাপ বেশি রাখা যাবে না। অর্থাৎ আপনার কম্পিউটারটি চালু করার সময় যদি অনেকগুলো অ্যাপ একসঙ্গে চালু হয় তাহলে কম্পিউটার ধীর গতি সম্পন্ন হতে পারে। তাই কম্পিউটার start অ্যাপ গুলো ডিজেবল করে রাখতে হবে।
  •  উক্ত কাজগুলো করার পরেও যদি আপনার কম্পিউটার ধীরগতি সম্পন্ন মনে হয় তাহলে আপনার পিসিটি কয়েকবার রিসেট করে নিন। এক্ষেত্রে খুব দ্রুত একটি ভালো সমাধান পাবেন।

রেজিস্ট্রি এরর সমস্যা

উইন্ডোজের যে রেজিস্ট্রি ফাইলগুলো থাকে সেগুলো কর্পোরেট হলে উইন্ডোজের নানা ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। এ সমস্যার সমাধান করতে হলে আপনাকে প্রথমে,
  • সিস্টেম কনফিগারেশন অ্যাপ ওপেন করতে হবে।
  • এরপর সার্ভিস অপশন এ গিয়ে হাইড অল মাইক্রোসফট সার্ভিসে ঠিক মার্ক দিতে হবে
  • এরপর সেখান থেকে সকল প্রকার থার্ড পার্টি অ্যাপ গুলোর ডিজেবল করে দিন, এবং পিসি রিস্টার্ট করে ক্লিনবোর্ড এনভায়রনমেন্ট চালু করতে হবে।
  • যে সফটওয়্যার গুলো রেজিস্ট্রি কি সমস্যা রয়েছে এডিটর থেকে সেগুলোর ভ্যালু খুঁজে বের করতে হবে এবং ট্রাভেল সুট এর মাধ্যমে তা ঠিক করতে হবে।
  • এছাড়াও সাধারণ উইন্ডোজ আপডেট এর মাধ্যমে রেজিস্ট্রি কি যে সমস্যাগুলো হয় তা নিজে নিজে ঠিক করতে পারবেন।

অডিও ফাইল কাজ না করা

অনেক সময় আমাদের পিসিতে এমন একটি সমস্যা হয় যার কারণে আমরা কোন ধরনের সাউন্ড পায় না। অর্থাৎ আমাদের স্পিকারে কোন ধরনের সমস্যা না থাকলেও আমরা কোন সাউন্ড শুনতে পায় না আসুন দেখেনি এ ধরনের সমস্যা হলে কিভাবে সমাধান করতে হয়।
  1. তবে আপনি আপনার কন্ট্রোল প্যানেলে চলে যান।
  2. সেখানে হার্ডওয়ার এন্ড সাউন্ড নামে একটি অপশন পাবেন
  3. আপনি যে ডিভাইসের মাধ্যমে সাউন্ড আউটপুট পাবেন তার পাশে একটি সবুজ টিক মার্ক থাকবে।
  4. এছাড়াও আপনার সাউন্ড সমস্যার সমাধান হিসেবে windows ট্রাবলশুট এর মাধ্যমে মাধ্যমেও সমাধান করতে পারবেন

আশা করা যায় উক্ত সিস্টেমের মাধ্যমে আপনার কম্পিউটারের সাউন্ড সিস্টেম সচল হবে।

উইন্ডোজ লগইন করতে সমস্যা

সাধারণভাবে আমরা যদি লগইন পাসওয়ার্ড ভুলে যায় সেক্ষেত্রে উইন্ডোজ এ লগইন করতে আমাদের সমস্যা হয়। কারণে আমাদের পাসওয়ার্ডটি পার্সোনাল কোন নোটবুকে রেখে দেওয়া উচিত। এছাড়াও লগইন করার আরেকটি সমস্যা হলো অনেকগুলো একাউন্ট একসঙ্গে ওপেন করা। 
এ ধরনের সমস্যা হয়ে থাকলে আপনি রান ওপেন Netplwiz ওপেন করেন। এবং এখান থেকে আপনি আপনার অপ্রয়োজনে যে একাউন্ট গুলো আছে সেগুলো মুছে ফেলতে পারবেন। এবং কম্পিউটার শাট ডাউন করার সময় সঠিক পদ্ধতি ব্যবহার করুন যাতে লগইন করতে কোন সমস্যা না হয়।
উইন্ডোজের কিছু সমস্যা ও তা সমাধানের উপায়

ইউ এস বি পোর্ট কাজ না করা

যাদের পিসিতে ইউএসবি পোর্ট কাজ করে না তাদের প্রথমে দেখতে হবে সরাসরি পোর্টে কোন সমস্যা হয়েছে কিনা? যদি ভোটে কোন সমস্যা না হয় তাহলে আপনাকে ম্যানেজার ওপেন করতে হবে। ম্যানেজার ওপেন করে প্রপার্টিস অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপর সেখান থেকে আপনি খুব সহজেই আপনার ইউএসবি ড্রাইভার আনইন্সটল করে দিয়ে বা আপডেট করার মাধ্যমে আপনার সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

ইন্টারনেট সংযোগ সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান

উইন্ডোজ আপডেট করার পরে বেশ কয়েকটি সমস্যা আমাদের সামনে আসছে তার মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা হলো ইন্টারনেট সংযোগ। আমরা অনেকেই এ ধরনের সমস্যায় পড়তেছি এবং কিভাবে সমাধান করব তা সঠিকভাবে বুঝতে পারছি না।

এ ধরনের সমাধান করার জন্য প্রথমে আপনাকে আপনার ইন্টারনেট সংযোগের স্পিড পরীক্ষা করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি যে কোন একটি ব্রাউজার থেকে আপনার ইন্টারনেট স্পিড সংযোগটি পরীক্ষা করে নেবেন। আপনি লক্ষ্য রাখবেন আপনার পিং ১০০  মিলি সেকেন্ডের কম হচ্ছে কিনা, আপনি কত এমবিবিএস ব্যবহার করছেন তা পাচ্ছেন কিনা। এবং আপনার ডাউনলোড স্পিড কত রয়েছে।
অনেক সময় দেখা যায় উইন্ডোজের সুপ্রিয় আপডেটগুলো আমরা বন্ধ করে রাখলেও ব্যাকগ্রাউন্ডে কিছু ডাউনলোড প্রসেস চালু হয়ে থাকে। যা আমাদের ইন্টারনেট স্পিড কমিয়ে দেয়। তাই আপনাকে প্রথমেই সার্চ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে ( windows update ) এরপর ইন্টার প্রেস করবেন। পরবর্তীতে check for updates অপশনটি আসলে সেটি never অপশন সিলেক্ট করে রাখুন।

এছাড়া আপনার ওয়াইফাই রাউটার টি যদি অনেক বেশি সময় থেকে চলতে থাকে তাহলে স্পিড কমে যেতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি সর্বোচ্চ পাঁচ থেকে দশ মিনিট আপনার রাউটারটি বন্ধ করে রাখতে পারেন।

অতিরিক্ত বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান

যে সকল ব্যবহারকারী কোন অপারেটিং সিস্টেম ১০ ব্যবহার করে তাদের অনেক সময় দেখা যায় ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অনেক ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হতে থাকে। এ ধরনের বিজ্ঞাপন গুলো অসাধারণত প্রপার এবং ব্যানার আকারে প্রদর্শিত হয় আমাদের কম্পিউটারে। 

এ ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হওয়ার মূল কারণ হলো ম্যালওয়্যার এবং অ্যাডওয়ার দ্বারা পিসি আক্রমণ ।

আপনি যদি কোন ব্রাউজার ওপেন না করার পরেও আপনার পিসিতে বিজ্ঞাপন দেখতে পান তাহলে বোঝা নিবেন আপনার পিসি মেলওয়ার্ড দ্বারা আক্রমণিত হয়েছে। তবে বেশ কিছু মার্কেটিং বিজ্ঞাপন রয়েছে যার সম্পূর্ণ ভিন্ন প্রকৃতির হয়ে থাকে।

এ ধরনের সমস্যা থেকে দ্রুত সমাধান পাওয়ার জন্য সবচেয়ে কর্মঠ এবং বিনামূল্যে একটি স্ক্যানার ব্যবহার করা যায়। স্ক্যানারটি হলো ম্যালওয়ারবইটাস এন্টি ম্যালওয়্যার টুল। এবং আপনি চাইলে খুব সহজেই এই টুল ব্যবহার করে আপনার কম্পিউটারের অবাঞ্চিত বিজ্ঞাপন গুলো বন্ধ করতে পারবেন।

কাতার কাজের ভিসা | কাতার যেতে কত টাকা লাগে | কাতারে কাজের বেতন কত |

Leave a Comment