কিরিবাতি ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ (থাকছে বিস্তারিত তথ্য)

কিরিবাস ভ্রমণ ভিসা ২০২৩

কিরিবাস ভ্রমণ ভিসা ২০২৩

এই দেশটিতে পর্যটকরা শান্তিপূর্ণভাবে এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভ্রমণ করতে পারেন। এই দেশটি আত্মনির দেশ এবং সমৃদ্ধ সম্পদ অধিকারী দেশ হিসেবে পরিচিত। এ দেশটিতে প্রতিবছর বিভিন্ন দেশ থেকে মানুষ ভ্রমণ করতে এসে থাকেন। দেশটির সবচেয়ে বেশি অর্থনৈতিক সম্পদ মাছ। এটি অর্থনীতি উৎস হিসেবে পরিচয় করে দেয় কিরেবাসকে।
আজকের আমরা কিবাস ভ্রমণ বিষয় ২০২৩ সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। এই আলোচনাগুলো থেকে আপনারা ভ্রমণ সম্পর্কে সুন্দর একটি গাইডলাইন পেয়ে যাবেন। প্রথমত আপনারা যে সকল তথ্যগুলো পাবেন তা হল, কিনিবাস যেতে কত টাকা লাগে, কিরিবাস যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন, কিরিবাসে দর্শনীয় স্থান ইত্যাদি।

কিরিবাস পরিচিতি

কিরিবাস ওশেনিয়া মহাদেশের একটি রাষ্ট্র। এটি একটি স্বাধীন দেশ। এই দেশটির রাজধানীর নাম তাড়াওয়া আর এ দেশের বৃহত্তম নগরী হচ্ছে দক্ষিণ তারাওয়া। দেশটির সরকারি ভাষা ইংরেজি এবং গিলবারটিস। এই দেশটির মোট আয়তন মাত্র ৮১১ বর্গ কিলোমিটার। এদেশটিতে মোট জনসংখ্যা রয়েছে প্রায় ১ লক্ষ ২৫ হাজার ৬৪ জন

কিরিবাসে কেন ভ্রমন করতে যাব

আপনি যদি একজন ভ্রমন প্রিয় মানুষ হয়ে থাকেন তবে আপনার তালিকায় এই দেশটিকে ও রাখতে পারেন। এই দেশটিতে ভ্রমণ করার মত সুন্দর সুন্দর স্থান রয়েছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দিক দিয়ে কিরিবাস অত্যন্ত সুন্দর একটি দেশ। এই দেশটিতে এসে আপনারা দেখতে পারবেন মনোরম পরিবেশ, পাহাড়, নদী, জলপ্রপাত ইত্যাদি।
এদেশটিতে আরো রয়েছে ঐতিহাসিক এবং সংস্কৃতি সমৃদ্ধ বেশ কিছু স্থান। এই দেশটিতে আপনারা ঐতিহাসিক ভবন, মোজাফফর আলী সংগ্রাম স্মারক, মহিষ সুরমার জাগো, ইত্যাদি জিনিস দেখতে পারবেন। যেগুলো আপনাকে এই দেশের ঐতিহাসিক বিষয়গুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে দেবে। আরো অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলোর কারণে আপনারা এই দেশটি ভ্রমণ করতে পারেন।

কিরিবাতি বা কিরিবাস ভ্রমণ ভিসা খরচ কত

আপনি যদি টুরিস্ট ভিসা নিয়ে কিরিবাস যান তাহলে আপনার চার্জ আসবে মোট ১৪,৩৭৫ টাকা। তবে সার্ভিস এবং ভিসা ফি মিলে এই টাকা খরচ হবে। আপনি যে সময় ভ্রমণ করতে যেতে চান সেই সময় আপনার নিকটস্থ এজেন্সি থেকে আপনি সঠিক তথ্য জেনে নিতে পারেন। অথবা আপনারা বুয়েসেলের ওয়েবসাইট থেকে সঠিক তথ্য জেনে নিতে পারবেন। আপনারা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে রিবাস টুরিস্ট ভিসা সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে পারবেন।

কিরিবাস ভ্রমণ পেশায় কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন

যে কোন দেশের ভ্রমণ করতে অথবা কাজ করতে যেতে হলে আমাদের বেশ কিছু ডকুমেন্টস বা কাগজপত্র প্রয়োজন হয়। কিরিবাস এর ব্যতিক্রম নয়। এ দেশে যেতে হলেও আপনার বেশ কিছু কাগজপত্র প্রয়োজন হবে। যে সকল কাগজপত্র গুলো অবশ্যই বৈধ হতে হবে। যে সকল কাগজপত্র বা ডকুমেন্টসগুলো প্রয়োজন হবে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
  • প্রথমত আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট প্রয়োজন হবে।
  • পাসপোর্ট এর মেয়াদ থাকতে হবে সর্বনিম্ন ৬ মাস
  • দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবির প্রয়োজন হবে।
  • অবশ্যই ছবিটি সদ্য দোলা হতে হবে তার পাশাপাশি রঙিন ছবি হতে হবে।
  • পূর্বের আপনার যদি কোন পাসপোর্ট থাকে বা একাধিক পাসপোর্ট থাকে সেগুলো দেখাতে হবে।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • নির্ভুলভাবে ভিসা ফরম পূরণকৃত ফর্মটি দিতে হবে।
  • আমন্ত্রণপত্র (যদি থাকে তবে)
  • করোনার টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে।
  • এয়ারলাইন্স এবং হোটেল রিজার্ভেশন এর টিকিট এবং হোটেল বুকিং এর কাগজপত্র দেখাতে হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে।
  • ভোটার আইডি কার্ড অথবা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এর প্রয়োজন হবে।

কিরিবাস ভিসা প্রসেসিং এর সময়

আপনি যদি সকল ডকুমেন্টস দিয়ে সঠিকভাবে আবেদন করেন তবে আপনার আনুমানিক ভিসা প্রসেসিং হতে সময় লাগবে প্রায় ৮ থেকে ১২ কর্মদিবস। তবে জেনে রাখা উচিত যে এটি সম্পূর্ণ দূতাবাসের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে থাকে। কিছু সময় কম অথবা বেশি হতে পারে। তবে সাধারণত ৮ থেকে ১২ কর্ম দিবস এর মধ্যে হয়ে যায়।
আরো জানতে ভিজিট করুন

Leave a Comment