কোরিয়ার লটারি আবেদন ২০২৩ | কোরিয়া লটারি আবেদন কবে শুরু হবে |

কোরিয়ার লটারি আবেদন ২০২৩ | কোরিয়া লটারি আবেদন কবে শুরু হবে |

কোরিয়া লটারি আবেদন ২০২৩

কোরিয়ায় লটারির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে বর্তমান সময়ে যাওয়া সম্ভব। বাংলাদেশ ওভারসিজ এমপ্লয়মেন্ট এন্ড সার্ভিসেস লিমিটেড এই বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে তুলে ধরেছে। এই বিজ্ঞপ্তি অনুসারে দক্ষিণ করে এই নতুন ভাবে বিদেশে যাওয়ার ভিসা কার্যক্রমটি চালু হয়েছে। সরকারিভাবে যে ভিসা ব্যবস্থা রয়েছে আপনারা যারা দক্ষিণ কোরিয়া যেতে আগ্রহীন তারা অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারেন। কোরিয়ান সরকার প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে কয়েক হাজার শ্রমিকদের বা তরুণদের ভালো বেতনের কাজ করার সুযোগ প্রদান করে থাকেন।
আগস্ট মাস থেকে নতুন ভাবে হাজারো তরুণকে দক্ষিণ করে পাঠানোর উদ্দেশ্যে অনলাইন এর মাধ্যমে আবেদনের কার্যক্রম বর্তমান সময়ের শুরু করা হয়েছে। আপনারা যারা দক্ষিণ কোরিয়া যেতে চান মূলত তাদের জন্যই আজকের আমাদের এই আর্টিকেল। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা দেখাবো কোরিয়া যাওয়ার ভিসা নিয়ে বিস্তারিত তথ্য।
আমরা আশাবাদী যে আমাদের আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনারা বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য পেয়ে যাবেন। আপনারা যারা কোরিয়া যেতে চান আমাদের এই সকল তথ্যগুলো আপনার অবশ্যই উপকারে আসবে। চলুন দেরি না করে এই সংক্রান্ত তথ্যগুলো জেনে নেওয়া যাক।

কোরিয়া লটারি আবেদন কবে শুরু হবে

আগামী ১১ জুন ২০২৩ খ্রিস্টাব্দে সকাল ১১ ঘটিকায় বুয়েসেলের অধিবাসী সম্মেলনে কোরিয়া লটারি আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হবে।
কুরিয়ার লটারি আবেদন কবে শুরু হবে কত তারিখে এই সকল তথ্যগুলো দৈনিক পত্রিকা, বুয়েসেল এর ওয়েবসাইটে ও ফেসবুকে প্রচার করা হয়। আপনারা এই সকল ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক পেজ থেকে সঠিক তথ্য পেতে পারেন। কোরিয়ার লটারি আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে আপডেট তথ্য পেতে বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকা এবং বুয়েসেলের ওয়েবসাইটের দিকে নজর রাখবেন। তাহলে আপনারা এই তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন।

কোরিয়া ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য লটারি ২০২৩

ইপিএস এর আওতায় ই ৯  ভিসা দক্ষিণ কোরিয়া শিল্প খাতে বাংলাদেশি প্রার্থীদের চাকরিতে নিয়োগের লক্ষ্যে কোরিয়া ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হলে যে সকল যোগ্যতা এবং শর্ত পূরণ করতে হবে তা নিম্নে লিখিত সাইট এর মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। এই সাইটের মাধ্যমে আপনারা অনলাইনে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারবেন। উল্লেখিত সাইট টি হলঃ- http://eps.boesl.gov.bd/

কোরিয়া ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা ও শর্তাবলী

কোরিয়া ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হলে আপনার বেশ কিছু যোগ্যতা এর প্রয়োজন হবে। আরো কিছু শর্ত অনুযায়ী কাজ করতে হবে। যে সকল যোগ্যতা ও শর্তাবলী রয়েছে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলোঃ-
  1. প্রথমত শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন হবে সর্বনিম্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা হতে হবে। এসএসসি এবং সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ
  2. পাসপোর্ট এর মেয়াদ সর্বনিম্ন ৬ জুন ২০২৩ পর্যন্ত হালনাগাদ থাকা প্রয়োজন।
  3. জাতীয় পরিচয় পত্র এবং তথ্যর সঙ্গে পাসপোর্টের সকল তথ্য মিল থাকতে হবে।
  4. যারা আবেদন করবেন তাদের বয়স অবশ্যই ১৮ বছর এর বেশি এবং ৩৯ বয়সের কম হতে হবে। অর্থাৎ যাদের জন্ম সাল ১৯৮৪ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত তারা সকলেই এই পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  5. যারা আবেদন করবেন তাদের পোশাক পরিচ্ছদ আচার-আচরণ ও কথোপকথনে মার্জিত হতে হবে।
  6. থ্রিডি (ডার্টি ডিফিকাল্ট এন্ড ডেঞ্জারাস) কাজ করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করতে হবে বা আগ্রহ থাকতে হবে।
  7. কালার বাইন্ডনেস বা রং বোঝার সক্ষমতা থাকতে হবে।
  8. কোরিয়া ভাষা পড়তে এবং লিখতে এবং বুঝতে পারদর্শী হতে হবে।
  9. যারা মাদক গ্রহণ করে তাদের অযোগ্য বলে বিবেচনা করা হবে।
  10. যে সকল ব্যক্তি ফৌজদারি অপরাধ বা জেল বা অন্যান্য কোন শাস্তি প্রাপ্ত রয়েছে তারা অযোগ্য বলে গণ্য হবেন।
  11. দেশ ত্যাগ করা নিষেধাজ্ঞা রয়েছে এমন ব্যক্তিগণ অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

কোরিয়া লটারি নিবন্ধন সংক্রান্ত তথ্য

যারা কোরিয়া তে লটারি নিয়ে যাবেন বলে ভাবছেন তাদেরকে অনলাইনে মাধ্যমে আবেদন করতে হবে বা নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধন করার জন্য বেশ কিছু সময় দেওয়া হয়েছে।

কোরিয়া লটারি প্রাথমিক নিবন্ধন কবে শুরু হবে

অনলাইনে প্রাথমিক নিবন্ধন

আগামী ৬ই জুন সকাল দশটা থেকে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হবে। ৮ জুন বিকেল ৪ ঘটিকা পর্যন্ত এ আবেদন প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। অনলাইনে প্রাথমিক নিবন্ধনকৃত প্রার্থীর সংখ্যা যদি ২০ হাজার এর বেশি হয়ে থাকে তবে এইচআরডি কোরিয়া কর্তৃক লটারির মাধ্যমে কোরিয়া ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহণের লক্ষ্যে চূড়ান্ত নিবন্ধনের জন্য প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।

কোরিয়া লটারি শুরু কবে

লটারি শুরু হবে আগামী ১১ই জুন ২০২৩ সালে। লটারি হবে সকাল ১১ টার সময় বুয়েসেলের অধিবাসী সম্মেলনে।

কোরিয়া লটারির চূড়ান্ত আবেদন কবে

আগামী ১৩ জুন ২০২৩ সালে চূড়ান্ত নিবন্ধন শুরু করা হবে। যারা চূড়ান্ত নিবন্ধন এটি এবং প্রবেশপত্র পাবে তারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ২৫শে জুলাই থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর প্রবাসী কল্যাণ ভবন এ নির্ধারিত ইউবিডি হলে।
এই সংক্রান্ত নোটিশ শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে এবং আপনাদেরকে জানিয়ে দেওয়া হবে। কোরিয়ার লটারি আবেদন ২০২৩ আরো অন্যান্য আগ্রহী ব্যক্তিদের কাছে পৌঁছে দিতে শেয়ার করুন
দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ২০২৩

দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ২০২৩

আমরা অনেকেই কোরিয়া লটারি আবার অনেকেই দক্ষিণ কোরিয়া লটারি লিখে এ সম্পর্কে জানার জন্য ইউটিউব অথবা গুগলে সার্চ দিয়ে থাকি। বর্তমান সময়ে অনেক বেশি পরিমাণ মানুষ জানতে আগ্রহী দক্ষিণ কোরিয়া লটারি সম্পর্কে। চলুন জেনে নেই দক্ষিণ কোরিয়া লটারি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কত টাকা লাগে

দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য কোরিয়া সরকার খুব বেশি সুযোগ করে দিয়েছেন। আপনারা হয়তো অনেকেই ভাবছেন খুব বেশি বলতে কী বোঝাতে চাচ্ছি। আসলে আমরা বোঝাতে চাচ্ছি যে দক্ষিণ কোরিয়া লটারির আবেদন করতে আপনার খরচ হবে মাত্র ৩৬ হাজার টাকা। তবে জেনে রাখা ভালো যে জামানত খরচ হিসেবে এবং অন্যান্য খরচ হিসেবে নতুন কর্মীদের ক্ষেত্রে দুই থেকে আড়াই লক্ষ টাকা দেখাতে হবে বা দুই থেকে আড়াই লক্ষ টাকা খরচ হবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার লটারি পেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন

দক্ষিণ কোরিয়ার লটারি পেতে হলে বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টগুলো আপনাকে দক্ষিণ কোরিয়া লটারি পেতে অনেক সাহায্য করবে।
  • প্রথমত আপনার এডুকেশন কোয়ালিফিকেশন এর প্রয়োজন হবে। আপনাকে ন্যূনতম এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে। পাসপোর্টে অবশ্যই ৬ জুন ২০২৩ পর্যন্ত মেয়াদ থাকতে হবে।
  • আপনার ভোটার আইডি কার্ডের প্রয়োজন হবে।
  • এবং সদ্য তোলা ছবির প্রয়োজন হবে।
  • আপনার বয়স ১৮ থেকে ৩৯ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • আপনার ব্যবহার এবং পোশাক পরিচ্ছদ মার্জিত হতে হবে।
  • সকল বিষয়ে কাজ করার জন্য আগ্রহ থাকতে হবে। যেমন, থ্রিডি, নোংরা কাজ, কঠিন এবং বিপদজনক কাজ ইত্যাদি।
  • বিভিন্ন রকম রং বোঝার সক্ষমতা থাকতে হবে।
  • কোরিয়ান ভাষায় দক্ষ হতে হবে, এবং তার পাশাপাশি পড়তে এবং লিখতে পারতে হবে।
  • দেশ ত্যাগের নিষেধাজ্ঞা থাকলে আপনি কোরিয়ার লটারিতে কখনোই দেখবেন না বা কখনোই আবেদন করতে পারবেন না।

দক্ষিণ কোরিয়া কাজের বেতন কত

বাংলাদেশ থেকে শত শত এবং হাজার হাজার কর্মী দক্ষিণ কোরিয়াতে বর্তমান সময়ে যাচ্ছেন এবং পূর্বে গেছেন এবং কাজ করেছেন। সেখান থেকে আমরা জানতে পারি যে তারা প্রতিমাসে বাংলাদেশী মুদ্রায় অর্থ আয় করতে পারে প্রায় দুই থেকে আড়াই লক্ষ টাকা। এই বিশাল পরিমাণ অর্থ আয় করার জন্য বর্তমান সময়ে মানুষ দক্ষিণ কোরিয়া যেতে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।
আপনারা যারা দক্ষিণ কোরিয়া লটারির মাধ্যমে যেতে চান তারা অবশ্যই সঠিকভাবে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন। অতঃপর আপনাদের যে সকল ডকুমেন্টসগুলো প্রয়োজন এবং যেগুলো বেশি প্রয়োজন সেদিকে অবশ্যই নজর রাখবেন। আর আপনি যদি কোরিয়া ভাষাতে এখনো পরিপূর্ণ দক্ষ না হন তবে ভাষা শেখার জন্য অতি জোর দেন। যত দ্রুত সময়ে আপনি এই ভাষা আয়ত্তে আনতে পারবেন তত ভালো।

দক্ষিণ কোরিয়া লটারি রেজিস্ট্রেশন খরচ কত

আপনারা যারা দক্ষিণ কোরিয়ার লটারি এর জন্য আবেদন করবেন বা রেজিস্ট্রেশন করবেন। তাদের জেনে নেওয়া উচিত যে দক্ষিণ কোরিয়া লটারি রেজিস্ট্রেশন করার জন্য কত টাকা খরচ হতে পারে।
দক্ষিণ কোরিয়া লটারির আবেদন ফরম পূরণ এর জন্য আবেদন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ৫০০ টাকার মত। আর যারা দক্ষিণ কোরিয়া কাজের জন্য যাবেন, ভাষা শিখবেন, তাদের আবেদন ফরম পূরণ করতে খরচ হবে ৫০০০ টাকা

দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ফি কিভাবে প্রদান করব

দক্ষিণ কোরিয়া লটারি ফি আপনারা বিকাশের মাধ্যমে খুব সহজেই প্রদান করতে পারবেন। বিকাশের মাধ্যমে ফি প্রদান করতে হলে আপনাকে সর্বপ্রথম বিকাশ অ্যাপ এ যেতে হবে।
  1. বিকাশ অ্যাপ এ যাবার পরে আপনারা একটি ইন্টারফেস দেখতে পারবেন। সেখানে আপনারা আরো দেখুন নামে একটি অপশন দেখতে পারবেন। তারপর আপনারা সেখানে ক্লিক করবেন। তারপরে এডুকেশন ফি সিলেক্ট করবেন।
  2. অতঃপর আপনারা ট্রেনিং টেপ করে বুয়েসেল সিলেট করবেন।
  3. অতঃপর আপনারা আপনাদের সঠিক সাবমিশন আইডি দিয়ে পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।
  4. তারপরে আপনারা আপনাদের পেমেন্টের তথ্য যাচাই করে পরবর্তী ধাপে ক্লিক করবেন।
  5. তারপর আপনারা দেখতে পারবেন আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্টের পিন নাম্বার দেওয়ার অপশন আসবে। সেখানে আপনারা আপনাদের পিন নাম্বার দেবেন।
  6. তারপরে পেমেন্ট সম্পন্ন করার জন্য নিচে একটি অপশন আসবে। সেখানে আলতোভাবে চেপে ধরে রাখুন। দেখবেন আপনার পেমেন্টটি সম্পন্ন হয়ে গেছে।
  7. আপনার পেমেন্টের ডিজিটাল রিসেট ইচ্ছা করলে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।
আরো জানতে ভিজিট করুন

Leave a Comment