ফিজি কাজের ভিসা 2023 | ফিজি যেতে কত টাকা লাগে | ফিজিতে কাজের বেতন কত |

ফিজি কাজের ভিসা 2023 | ফিজি যেতে কত টাকা লাগে | ফিজিতে কাজের বেতন কত |
ফিজি একটি স্বাধীন দ্বীপ রাষ্ট্র এটি অবস্থিত দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে। এই দেশটির সরকারি নাম প্রজাতন্ত্রী ফিজি দ্বীপপুঞ্জ। এদেশটির বৃহত্তম নগরী সুভা। এই দেশটির আয়তন ১৮,২৭৪ বর্গ কিলোমিটার অথবা ৭,০৫৬ বর্গমাইল। এ দেশটিতে মোট জনসংখ্যা রয়েছে ৮ লক্ষ ৫৮ হাজার এর মত। এই দেশটির মোট জনসংখ্যার মধ্যে ৪৪ শতাংশ ভারতীয় জাতি রয়েছে। ৫১ শতাংশ ফিজি জাতি এবং অন্যান্য। এই দেশটির মুদ্রার নাম ফিজিয়ান ডলার।
এ দেশটি আমদানি ও রপ্তানির মাধ্যমে বেশ সম্প্রসারিত রয়েছে। এ দেশটিতে অর্থনৈতিক দিক দিয়ে সবচেয়ে বেশি প্রসারিত হয়েছে চিনির উৎপাদন পর্যটন এবং কাপড় তৈরি সংক্রান্ত শিল্পের মাধ্যমে। এই তিনটি শিল্প এই দেশটির খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং সর্বোচ্চ অর্থনৈতিক শক্তি। এই শিল্পগুলো ব্যতীত জেলে শিল্পে ও প্রচুর অর্থ উপার্জন করে। মূলত জেলে শিল্পের উপর নির্ভর করেই বর্তমান সময়ে ফিজিকের আমরা চিনে থাকি।

ফিজি কাজের ভিসা 2023

আমরা জীবিকা নির্বাহের জন্য কত রকমের কাজ করে থাকি। অর্থ উপার্জন করার জন্য আমরা দূর-দূরান্তে পাড়ি জমায়। আমরা অনেকেই রয়েছে যারা বাইরের দেশে কাজ করতে যেতে ইচ্ছুক। যেমন, সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, কুয়েত, সিঙ্গাপুর ইত্যাদি। আপনারা যারা ফিজিতে যাবেন মূলত তাদের জন্যই আজকের আমাদের এই কনটেন্ট সাজানো হয়েছে। এখান থেকে আপনারা ফিজি সম্পর্কে বেশ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়ে যাবেন।
যেমন, ফিজি যেতে কত টাকা লাগে? ফিজিতে কাজের বেতন কত? ফিজি যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন হয়? ফিজিতে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য। আমরা আশা করছি যে আপনারা এখান থেকে সামান্য পরিমান হলেও উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ। চলুন দেখে নেওয়া যাক এই দেশ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

ফিজি যেতে কত টাকা লাগে

এই দেশে যেতে হলে আপনার মোট খরচ হবে প্রায় ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ৬ লক্ষ টাকার মতো লেগে থাকে। এজেন্সি বা যাদের মাধ্যমে জান তারা অনেক সময় কিছুটা কম অথবা বেশি করে থাকেন তাদের বেশি লাভের জন্য। ফিজি যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে আপনাদের সকলের জানা উচিত।
কেননা, আপনারা অনেকেই রয়েছেন যারা জীবিকা নির্বাহের কাজে অন্যান্য দেশে যেয়ে থাকেন। এই সম্পর্কে যদি আপনার জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি দালালদের খপ্পরে থেকে অথবা ফেক এজেন্সির হাত থেকে বাঁচতে পারবেন। আপনাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা দিতে পারবেন না সে সকল দালাল।

ফিজিতে কাজের বেতন কত

ফিজিতে একজন শ্রমিক বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় মাসিক আয় করে থাকেন প্রায় ৫০ হাজারের আশেপাশে। কর্ম ভেদে বেতন কম বেশী হয়ে থাকে। যারা নিম্নমানের কাজ করেন তারা ৪০,০০০ এর আশেপাশে বেতন পান আর যারা একটু ভালো কাজ করেন তারা ৫০ থেকে ৬০ হাজার বেতন পেয়ে থাকেন। বিভিন্ন কোম্পানিতে বিভিন্ন রকম ক্যাটাগরির কাজে ভিন্ন রকম বেতন দেয়া হয়ে থাকে।
কোন কাজের বেতন কত এ সম্পর্কে জানা আপনাদের সকলের উচিত। কেননা বিদেশে বাংলাদেশেররা যাই মূলত কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে। আর আপনি যেই কাজ করতে যাবেন সেই কাজের বেতনটাও আপনার জন্য জানা জরুরী। বেতন জানা থাকলে আপনি সেই বোতাবেক কাজ করতে পারবেন। আপনি পূর্বে থেকে ই বুঝতে পারবেন সেখানে গিয়ে আপনার কেমন লাভ হবে অথবা কেমন হতে হবে। প্রতিমাসে কত টাকা উপার্জন করতে পারবেন। কত টাকা সঞ্চয় করতে পারবেন ইত্যাদি।

ফিজি যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন

যে কোন দেশে যাবার ক্ষেত্রে আমাদের ডকুমেন্টের প্রয়োজন হয়ে থাকে। কেননা ডকুমেন্ট ছাড়া কোন দেশে যাওয়া কখনোই সম্ভব না। বিভিন্ন দেশে যাবার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয়। আর ডকুমেন্টসগুলো সঠিক না থাকলে বা ভুল থাকলে আপনি আপনার কাঙ্খিত স্থানে কখনো পৌঁছাতে পারবেন না। যে কারণে আমাদের সকলের জানা উচিত ডকুমেন্টস গুলো সম্পর্কে। চলুন জেনে আসি সেই সম্পর্কে কিছু তথ্য।
  • ফিজি যাবার ক্ষেত্রে প্রথমত আপনার একটি পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে। যাতে সর্বনিম্ন 6 মাস এর বেশি মেয়াদ থাকতে হবে।
  •  এন আই ডি কার্ড এর প্রয়োজন হবে।
  • আপনার সদ্য তোলা ছবির প্রয়োজন হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • করোনার টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে।
  • মেডিকেল রিপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
যদি আরো কোন ডকুমেন্ট এর প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি যার মাধ্যমে যাবেন অথবা যে এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন তারা যাওয়ার পূর্বেই আপনাকে জানিয়ে দিবে।
ফিজি কাজের ভিসা 2023 | ফিজি যেতে কত টাকা লাগে | ফিজিতে কাজের বেতন কত |

ফিজিতে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন

আপনারা অনেকেই অনেক বেশি আগ্রহী এই বিষয়টি জানার ক্ষেত্রে যে ফিজিতে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন। আপনারা অনেকেই রয়েছেন যারা বাংলাদেশ থেকে এই দেশে যেতে আগ্রহী কাজ করার জন্য। যে কারণে মূলত আপনাদের এই সম্পর্কে জানা উচিত। চলুন দেখে নেওয়া যাক বাংলাদেশ থেকে যারা ফিজিতে কাজ করতে যাই তারা কেমন কাজ করে।
  • ফিজিতে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশের কাজ করে থাকেন কনস্ট্রাকশন সাইটে।
  • ট্যুরিজম সেক্টরে কাজ করে থাকেন।
  • কৃষি কাজ করে থাকেন।
  • হোটেলে কাজ করে থাকেন।
  • মৎস্য সেক্টরের কাজ করে থাকেন।
  • গার্মেন্টসে কাজ করে থাকেন ইত্যাদি।
এই দেশে বাঙালিরা এসে আরো অনেক সেক্টরে কাজ করে থাকেন। আমরা যে কয়টি সেক্টর সম্পর্কে আলোচনা করেছি এই সেক্টর গুলোর মধ্যেও অনেক রকম কাজ রয়েছে। যেমন, কনস্ট্রাকশন সাইটের মধ্যে রয়েছে, মেসন এর কাজ, লেবারের কাজ, টাইলসের কাজ ইত্যাদি। এমনভাবে প্রত্যেক সেক্টরের মধ্যে বেশ কয়েক রকম কাজ রয়েছে।

ফিজিতে কোন কাজে চাহিদা বেশি

আমরা সকলেই জানি সকল কাজের চাহিদার একরকম নয়। কোন কাজে চাহিদা বেশি থাকে এবং কোন কাজের চাহিদা কম থাকে। যে সকল কাজগুলো চাহিদা বেশি থাকে সেই সকল কাজগুলোতে আপনি যদি অভিজ্ঞ হন তাহলে খুব দ্রুত সময়ে সেই সকল কাজগুলো পেয়ে যাবেন। যে কারণে মূলত বিদেশ যাওয়ার পূর্বে কোন কাজের চাহিদা বেশি তা জানা উচিত।
  1. টাইলস
  2. ড্রাইভিং
  3. লেবার
  4. কার্পেন্টার
  5. কন্সট্রাকশন
  6. ইলেকট্রনিক্স
  7. কৃষি
  8. ওয়েল্ডার
  9. ক্লিনার
  10. হোটেল
  11. মেকানিক্যাল

ফিজিতে সর্বনিম্ন বেতন কত

ফিজিতে একজন শ্রমিক কাজ করে ঘন্টা ৪ ফিজিয়ান ডলার আয় করতে পারবেন। ফিজিতে বর্তমানে ঘন্টার প্রতি চার ফিজিয়ান ডলার সর্বনিম্ন বেতন নির্ধারণ করা হয়েছে। এর চেয়ে বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন কাজ করে। তবে এর চেয়ে কম অর্থ কোন কোম্পানির বা কেউ আপনাকে প্রদান করতে পারবেন না কাজের বিনিময়ে।

Leave a Comment