মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট ভিসা | মন্টিনিগ্রো যেতে কত টাকা লাগে |

মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট বা কাজের ভিসা সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে আজকে আর্টিকেল সাজানো হয়েছে। আপনারা যারা এই দেশটি সম্পর্কে জানতে আগ্রহী তাদের জন্য আজকে আর্টিকেল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আজকে আর্টিকেল থেকে এই দেশটি সম্পর্কে আপনারা অনেক তথ্য জানতে পারবেন যেগুলো আপনার উপকারে আসতে পারে। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক এই দেশটি সম্পর্কে বিভিন্ন রকম তথ্য।

মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট ভিসা

মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট বা কাজের ভিসা সংক্রান্ত যাবত তথ্য জানতে পারবেন। যে সকল তথ্যগুলো যেকোনো দেশে যাওয়ার পূর্বেই সেই দেশ সম্পর্কে আপনাদের জানা উচিত। এই দেশটি সম্পর্কে যে সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
মন্টিনিগ্রো যেতে কত টাকা লাগে, কিভাবে যাবেন, মন্টিনিগ্রো যেতে কি কি ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হতে পারে, সেখানে কাজ করে আপনারা প্রতি মাসে কেমন টাকা আয় করতে পারবেন, কোন কাজগুলো চাহিদা বেশি রয়েছে, কি কি কাজ করতে পারবেন এছাড়াও আরো অন্যান্য তথ্য জানতে পারবেন। চলুন এই দেশটি সম্পর্কে সকল রকম তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

মন্টিনিগ্রো পরিচিতি

এটা ইউরোপ মহাদেশের একটি দেশ। আর আমরা কাজ করার জন্য বেশিরভাগ মানুষই যেতে চাই ইউরোপের কোন একটি দেশে। আপনার যদি ইউরোপ কান্ট্রিতে ঢুকতে চান তবে আপনারা এদেশটিতে যেতে পারেন। এ দেশটির বৃহত্তম নগরী এবং রাজধানী পোডগরিচা। এই দেশটির মুদ্রার নাম ইউরো।

মন্টিনিগ্রোতে কোন কোন ক্যাটাগরি ভিসা চালু আছে

মন্টিনিগ্রোতে বেশ কয়েক রকম ভিসার ক্যাটাগরি চালু রয়েছে। আপনারা যে কোন ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে এদেশটিতে যেতে পারেন। যে সকল ক্যাটাগরি গুলো চালু রয়েছে তা হলোঃ-
  1. ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
  2. স্টুডেন্ট ভিসা
  3. টুরিস্ট ভিসা
  4. বিজনেস ভিসা ইত্যাদি
আপনারা যে কোন ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে খুব সহজেই বাংলাদেশ থেকে মন্টিনিগ্রো যেতে পারেন।

মন্টিনিগ্রো যেতে কত টাকা লাগে

মন্টিনিগ্রোতে আপনারা যদি বাংলাদেশ থেকে যান সে ক্ষেত্রে আপনাদের খরচ হবে ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা। তবে ভিসা ক্যাটাগরির উপর নির্ভর করে এবং বিভিন্ন কাজের উপর নির্ভর করে খরচ কম বেশি হতে পারে। তবে যাবার পূর্বে আপনারা অবশ্যই সকল তথ্য জেনে বুঝে যাবেন। আপনারা যেহেতু এই দেশটিতে কাজ করতে যাবেন সুতরাং আপনাদের এই সংক্রান্ত তথ্যগুলো জানা উচিত।

মন্টিনিগ্রো কাজের বেতন কত

মন্টিনিগ্রোতে কাজ করে আপনারা প্রতি মাসে আয় করতে পারবেন সাধারণত ৬০০ ইউরো। এটা হচ্ছে বেসিক বেতন। তবে আপনারা যদি অতিরিক্ত কাজ করেন অর্থাৎ ৮ ঘণ্টা এর চেয়ে বেশি কাজ করেন সে ক্ষেত্রে আপনাদের অতিরিক্ত বেতন প্রদান করা হবে।
আপনি যদি প্রতিমাসে ৬০০ ইউরো এর কাজ করে থাকেন তাহলে বাংলাদেশের মুদ্রায় প্রায় ৭১ হাজার ১০০ টাকা। আপনি যদি ওভারটাইম সহ কাজ করে থাকেন তাহলে প্রতি মাসে আপনি ইনকাম করতে পারবেন প্রায় ৭০ থেকে এক লক্ষ বা তারও বেশি। তবে বিভিন্ন কাজের উপর নির্ভর করে বেতন কম বেশি হয়ে থাকে।
আরও জানতে ভিজিট করুন

মন্টিনিগ্রো যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়

মন্টিনিগ্রো যেতে হলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। অবশ্যই ডকুমেন্টগুলো অরিজিনাল হতে হবে। যে সকল ডকমেন্টসগুলো প্রয়োজন হতে পারে তা হলঃ-
  • একটি বৈধ পাসপোর্ট।
  • পাসপোর্ট এর মেয়াদ থাকতে হবে সর্বনিম্ন ৬ মাস।
  • পাসপোর্টে সর্বনিম্ন দুইটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।
  • পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।
  • মেডিকেল রিপোর্ট।
  • করোনা টিকা কার্ড।
  • জন্ম নিবন্ধন এবং ভোটার আইডি কার্ড।


মন্টিনিগ্রো গিয়ে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন

মন্টিনিগ্রো গিয়ে বাঙালিরা অনেক ধরনের কাজ করেন। তবে বাঙালিরা যে সকল কাজগুলো সবচেয়ে বেশি করে থাকেন তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো। আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে এদেশে কাজ করতে আসেন সে ক্ষেত্রে আপনারা এমন ধরনের কাজ করতে পারবেন। যেমন,
  1. সাটারিং কার্পেন্টার
  2. স্টিল পিকচার
  3. হোটেল
  4. ম্যাসন
  5. রেস্টুরেন্ট
  6. প্লাম্বার
  7. ইলেকট্রিশিয়ান
  8. সুপার শপ
  9. পেইন্টার
  10. ফোরমান
  11. সেফ
  12. ইঞ্জিনিয়ার
মন্টিনিগ্রো ওয়ার্ক পারমিট ভিসা  মন্টিনিগ্রো যেতে কত টাকা লাগে

মন্টিনিগ্রোতে কয় ধরনের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন

আপনারা মূলত এই দেশটিতে দুই ধরনের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন। একটি হচ্ছে দক্ষ কর্মী এবং আরেকটি হচ্ছে অদক্ষ কর্মী। অনেকে হয়তো ভাবছেন দক্ষ কর্মী এবং অদক্ষ করে নিয়ে বলতে আমরা কি বোঝাচ্ছি। দক্ষ কর্মী এবং অদক্ষ কর্মী হলোঃ-
দক্ষ কর্মীঃ– যারা এই সকল কাজগুলো কিন্তু দক্ষ হয়ে থাকে তাদেরকে মূলত দক্ষ কর্মী বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ আমরা বলতে পারি, কনস্ট্রাকশন সেক্টরের ভেতরে অনেক ধরনের ভাগ রয়েছে। তবে যারা সাটারিং কার্পেন্টার, স্টিল পিকচার, ম্যাসন, প্লাম্বার, ইলেকট্রিশিয়ান, পেইন্টার, ফোরমান, ইঞ্জিনিয়ার ইত্যাদি এগুলো কাজ যারা করে থাকে তাদেরকে দক্ষ কর্মী বলা হয়।
অদক্ষ কর্মীঃ– যারা মূলত জেনারেল লেবার হিসেবে কাজ করে থাকে তাদেরকে অদক্ষ কর্মী বলা হয়।
বাংলাদেশ থেকে মূলত আপনারা গিয়ে এই সকল কাজগুলো করতে পারবেন এছাড়াও আরও অনেক ধরনের কাজ আছে। পুরো কন্টেন্টের মনোযোগ সহকারে পড়লে সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

মন্টিনিগ্রোতে কোন কোন কাজের চাহিদা রয়েছে

মন্টিনিগ্রোতে অনেক ধরনের কাজ রয়েছে। তবে যে সকল কাজগুলো চাহিদা বেশি রয়েছে সেগুলো আপনাদের জানা উচিত। কারন আপনারা এই কাজগুলোর উপর নির্ভর করে সে দেশে কাজ করতে যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাদের কাজ করে সুবিধা হবে এবং এই সকল কাজগুলো করলে ভালো পরিমান অর্থ ইনকাম করতে পারবেন। যে সকল কাজগুলো চাহিদা বেশি রয়েছে তা হলোঃ-
  1. সেফ
  2. হোটেল
  3. ফোরমান
  4. ম্যাসন
  5. রেস্টুরেন্ট
  6. প্লাম্বার
  7. ইলেকট্রিশিয়ান
  8. স্টিল পিকচার
  9. সুপার শপ
  10. পেইন্টার
  11. সাটারিং কার্পেন্টার
  12. ইঞ্জিনিয়ার

Leave a Comment