মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা (বিমান ভাড়া এবং বেতনসহ বিস্তারিত)

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা (বিমান ভাড়া এবং বেতনসহ বিস্তারিত)



প্রিয় পাঠক মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা নেওয়ার জন্য যাদের মনে নানা ধরনের প্রশ্ন আছে তাদের সকল প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আজকের আমাদের এই কনটেন্টটি সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। আপনার হয়তো ইতিমধ্যেই জেনে গেছেন যে মরিশাস দেশটি খুব একটা বেশি বৃহৎ নয়। আয়তন খুবই অল্প এবং জনসংখ্যা ও খুব সীমিত। তবে এদেশেও শ্রমিক সংকট হয় যার কারণে এশিয়া তথা বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা ভারত থেকে প্রচুর পরিমাণ শ্রমিক নিয়ে থাকে দেশটি সরকার।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩

এই দেশটিতে সবথেকে বেশি যে ভিসা প্রদান করা হয় তার মধ্যে অন্যতম একটি ভিসা হল মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা। কি করে বলেছেন হ্যাঁ বন্ধুরা আপনি ঠিক পড়েছেন কারণ এদেশটি আয়তনে অনেক ছোট হলেও পোশাকশিল্পে এনেছে ব্যাপক এক উন্নতি। এবং এদের পোশাক খাতে কাজ করার জন্য বিপুল পরিমাণ শ্রমিক সংকট দেখা দেয়। এবং এই শ্রমিক সংকট গুলোই সাধারণভাবে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা এসকল দেশ থেকে পূরণ করে থাকে।

তাই আজকে আমরা আপনাদেরকে গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে যে তথ্যগুলো নতুন আপডেট এসেছে সেগুলো সম্পর্কেই জানাতে যাচ্ছি। আমাদেরই কন্টেন্টের মাধ্যমে আপনি মরিচার গার্মেন্টস ভিসা বেতন কত সেখানে গিয়ে ওভারটাইম কাজ করা যায় কিনা এবং গার্মেন্টস ভিসা পেতে কত দিন সময় লাগে সে সম্পর্কে একটি সুনির্দিষ্ট ধারণা পাবেন। তাহলে বন্ধুরা আপনি যদি মরিশাস  ভিসা নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী হন তাহলে আমাদের কনটেন্টই মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা খোলা নাকি বন্ধ

 বর্তমানে মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা খোলা রয়েছ। তবে করোনা কালীন সময়ে দীর্ঘদিন থেকে গার্মেন্টস ভিসা বন্ধ অবস্থায় ছিল। তবে সম্প্রীতি কিছুদিন আগে  গার্মেন্টস ভিসা খুলে দিয়েছে দেশটি। তবে এই দৃষ্টিতে গার্মেন্টস বিষয় কর্মী কম নেওয়ার কারণে সারা বছর গার্মেন্টস ভিসা পাওয়া যায় না।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা কিভাবে পাবেন

মরিশাস গার্মেন্টস পেশায় কাজ করার আগ্রহ অনেকের মধ্যেই থাকে। তবে কিভাবে মরিসাস গার্মেন্টস ভিসা সংগ্রহ করবেন এ সম্পর্কে কোন ধারণা না থাকার কারণে অনেকেই সেখানে অধিবাসন করতে পারছেন না। মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা সংগ্রহের মূলত কয়েকটি উপায় রয়েছে। উপায় গুলোর মধ্যে কয়েকটি উপায় নিচে আলোচনা করছি:
  1. মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা অবশ্যই আপনাকে বাংলাদেশে অবস্থিত যে কোন একটি এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার যদি পরিচিত কোন এজেন্সি থেকে থাকে তাহলে সেখানে কথা বলতে পারেন অথবা যদি পরিচিত এজেন্সি না থাকে সে ক্ষেত্রে বয়েসেল নিবন্ধিত এজেন্সি থেকে ভিসা আবেদন সম্পন্ন করতে পারেন। উক্ত এজেন্সি থেকে ভিসা আবেদন করলে আবেদন জটিলতা থাকে না।             
  2. এছাড়া মরিশাস গার্মেন্টসের সংগ্রহ করার জন্য আপনি প্রথমে মরিশাস ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করতে পারেন। কারণ মরিশাস গার্মেন্টসে ভিসা সারা বছর পাওয়া যায় না এবং গার্মেন্টস ভিসা এজেন্সি থেকে সংগ্রহ করতে গেলে কিছু বাধার সম্মুখীন হতে হয়। 
  3. মরিশাস  ভিসা সংগ্রহ করার সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ উপায় হল সেখানে অবস্থিত কোন পরিচিত মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করা। কারণ আপনি যদি মরিশাস  ভিসা নিরাপদ ভাবে পেতে চান তাহলে এটি হচ্ছে সবচেয়ে উত্তম উপায়। কারণ বেশি ও এজেন্সি থেকে সারা বছর মরিশাসগার্মেন্টস ভিসা পাওয়া যায় না। তাই সেখানে অবস্থিত কোন নিকটবর্তী মানুষের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ভিসা সংগ্রহ করলে সবচেয়ে বেশি নিরাপদ হবে।

মরিশাস গার্মেন্টস কর্মীদের বেতন কত

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা এ বেতন মূলত ৪০,০০০থেকে শুরু করে এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত। যাদের গার্মেন্টসে কাজ করার অন্যতম অভিজ্ঞতা রয়েছে তারা অবশ্যই জানেন যে পদস্থ শ্রমিক থাকে। স্টোর কিপার থেকে শুরু করে কোয়ালিটি পর্যন্ত নানা ধরনের কর্মী একটি গার্মেন্টসে কাজ করে থাকে। এবং মরিশাস গার্মেন্টস বেতন মূলত আপনার পদের ওপর নির্ভর করে। তবে আপনি যে পদে কাজ করছেন সে পদে যদি অতি দ্রুত সফলতার সঙ্গে উন্নতি করতে পারেন তাহলে আপনার খুব তাড়াতাড়ি পদোন্নতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এছাড়া আপনি যদি কোন গার্মেন্টসে কাজ করার নূন্যতম ছয় মাসের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন সে ক্ষেত্রে মরিশাস গার্মেন্টস ভিসায় ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পাবার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আপনি যদি একেবারে নতুন অবস্থায় মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা সংগ্রহ করেন সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকার বেশি বেতন পাবেন না।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসার দাম কত

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসার দাম সর্বোচ্চ ৩ লক্ষ টাকা। তবে আপনি যদি কোন দালাল বা প্রতারক চক্র গুলোর সঙ্গে মরিশাস গার্মেন্টস ভিসার জন্য চুক্তি করেন সেক্ষেত্রে তারা আপনার সঙ্গে কমপক্ষে ৭ থেকে ৮ লক্ষ টাকা দাবি করবে। তাই মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা সংগ্রহ করার জন্য কখনোই কোনো দালাল বা প্রতারক সঙ্গে কোন ধরনের চুক্তিতে যাবেন না।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা (বিমান ভাড়া এবং বেতনসহ বিস্তারিত)



মরিশাস বিমান ভাড়া কত

মরিশাস যাওয়ার জন্য আপনি কোন ধরনের এয়ারলাইন্স ব্যবহার করবেন সেটার উপর নির্ভর করবে আপনার বিমান ভাড়া। তবে এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা এবং সর্বনিম্ন ২০ হাজার টাকার মধ্যে মরিশাস যেতে পারবেন। এক্ষেত্রে যদি আপনি ভালো এয়ারলাইন্স টিকেট ক্রয় করেন সেক্ষেত্রে মূল্য একটু বেশি হবে এবং লোকাল এয়ারলাইন্স গুলোর জন্য মূল্য কম হবে।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে অনেকেই আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন, আসলে মরিশাস গার্মেন্টস আবেদন প্রক্রিয়াটি খুব একটি বেশি জটিল নয়, যারা একটু সচেতনভাবে ইন্টারনেট ব্রাউজিং করতে পারেন তারা ঘরে বসে নিজে নিজেই মরিশাস গার্মেন্টস এসে আবেদন করতে পারবেন। তবে যারা ইন্টারনেট সম্পর্কে বোঝেন না তারা সরাসরি এজেন্সিতে গিয়ে আবেদন করে নিবেন। তবে আপনি যেখান থেকে মরিশাস গার্মেন্টস ভিসার জন্য আবেদন করেন না কেন আপনার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসগুলো যেন সঠিক হয় এবং আবেদনের মধ্যে যেন কোন ভুল না থাকে। আপনার আবেদনের মধ্যে যদি কোন ভুল থেকে থাকে তাহলে আপনার আবেদনটি বাতিল করে দেয়া হবে এবং আবেদনের সময় যে ফি প্রদান করতে হয় সেটিও আর ফেরত পাবেন না।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা পাবার জন্য কোন কঠিন ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয় না। তবে সাধারন ভাবে দেখতে থেকে অন্য দেশে পারাপারের জন্য যে কমন ডকুমেন্টস গুলোর প্রয়োজন হয় সেগুলো থাকলেই আপনি গার্মেন্টস ভিসা পাবেন। সেগুলোর মধ্যে কয়েকটি আমরা উল্লেখ করে দিচ্ছি।

  • মরিশাস গার্মেন্টস পেশার জন্য একটি আবেদন ফরম
  • একটি ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • একটি বৈধ পাসপোর্ট এর পাশাপাশি ছয় মাসের মেয়াদ থাকতে হবে
  • পাসপোর্টে অবশ্যই ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকা বাধ্যতামূলক
  • পিতা-মাতার এনআইডি কার্ড সহ কোভিড উনিশ সার্টিফিকেট
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ও মেডিকেল রিপোর্ট
  • এয়ারলাইন্স টিকেট
  • কোন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থাকলে সেখান থেকে একটি চিঠি করতে হবে

সরকারিভাবে মরিশাস যাওয়ার উপায়

সরকারিভাবে  ভিসা যাওয়ার জন্য যারা আগ্রহ প্রকাশ করেন তাদের জন্য বলতে চাই আপনার যদি আর্থিক সমস্যা না থাকে তাহলে সরকারিভাবে মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা পাওয়ার জন্য অতিরিক্ত চেষ্টা না করাটাই ভালো। কারণ সরকারি ভাবে মরিসাস গার্মেন্টস ভিসার জন্য খুবই কম পরিমাণ পাঠানো হয়। তবে আপনি যদি দরিদ্র হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে সরকারিভাবে আবেদন করতে পারেন। এক্ষেত্রে সরকারিভাবে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ওয়েবসাইটে তা জানানো হবে।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসার সুযোগ সুবিধা

হ্যালো বন্ধুরা মরিশাস গার্মেন্টসে কাজ করার জন্য যারা ইতিমধ্যেই ভিসা পেয়ে গেছেন তারা জানতে চান যে গার্মেন্টস ভিসার কোন সুবিধাগুলো পাবেন? আসুন জেনে নিছেন কাজ করে আমরা কোন সুবিধা গুলো পেতে পারি।

  • যদি আপনি কোম্পানিতে কাজ করেন সেক্ষেত্রে আপনার বাসস্থান ফ্রি থাকবে।
  • সাপ্তাহিক ছুটি পাবেন
  • বাড়তি ওভারটাইম করার সুযোগ সুবিধা
  • স্কুল ডেভেলপমেন্টের পাশাপাশি বেতন বাড়বে
  • অসুস্থতার জন্য স্পেশাল ট্রিটমেন্ট ব্যবস্থা
  • ফ্লাটের টিকিট খরচ কোম্পানি বহন করবে
  • এছাড়াও গার্মেন্টস কর্মরত অবস্থায় মারা গেলে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ পাবেন।

মরিশাস গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে সতর্কতা

আপনাকে যারা  ভিসা নিয়ে কাজ ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছেন কিংবা সেখানে যাওয়ার জন্য পরিকল্পনা করছেন তাদের জন্য আমরা কিছু সতর্কমূলক কথা বলতে চাই। মরিচত গার্মেন্টস ভিসা নেওয়ার আগে আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে বেশি কিছু দালাল প্রতারক এবং এজেন্সি সম্পর্কে।

 কারণ দেশে অবস্থিত এমন কিছু এজেন্সি রয়েছে যারা আপনার থেকে শুধুমাত্র অর্থের চুক্তি করবে কিন্তু আপনাকে তারা মরিশাস  গার্মেন্টস ভিসা কখনোই দিতে পারবে না। এছাড়াও বেশ কিছু দালাল রয়েছে যারা আপনাকে অনেক কম খরচে সরকারিভাবে ভিসা দেওয়ার জন্য প্রলোভন দেখাবে। যারা আপনাকে একেবারে কম খরচে  ভিসা দেওয়ার প্রলোভন দেখাবে এদের থেকে অবশ্যই সাবধানে থাকবেন।

Leave a Comment