মালদোভা কাজের ভিসা | মালদোভা কাজের বেতন কত |

মালদোভা কাজের ভিসা | মালদোভা কাজের বেতন কত |
আসসালামু আলাইকুম, আজকে আরেকটি নতুন দেশ নিয়ে হাজির হলাম। আজকের আলোচনা থেকে আপনারা এই দেশটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন। আপনারা হয়তো ইতিমধ্যে বুঝতে পেরেছেন আজকে কোন দেশটি নিয়ে আলোচনা করা হবে। আজকের আলোচ্য বিষয় থাকবে

মালদোভা কাজের ভিসা সংক্রান্ত জানা-অজানা সকল তথ্য নিয়ে।

তো আপনারা অনেকেই রয়েছেন যারা এই দেশটিতে কাজ করার জন্য যেতে চান। তাই আপনাদের সকলেরই কম বেশি জানা উচিত এ দেশটি সম্পর্কে। আপনি যদি এ দেশটি সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তবে আজকে আর্টিকেল আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক এই দেশটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ইনশাআল্লাহ আপনারা উপকৃত হবেন।

মালদোভা পরিচিতি

মালদোভা ইউরোপ মহাদেশে অবস্থিত একটি দেশ। এই দেশটির আয়তন প্রায় ৩৩ হাজার ৮৫১ বর্গ কিলোমিটার। দেশটিতে জনসংখ্যা রয়েছে প্রায় ৩৪ লক্ষ ১৭ হাজার ২৬৪ জন (২০২৩)। দেশটির বৃহত্তম শহর এবং রাজধানীর নাম চিসিনাউ। এই দেশটি পশ্চিমে রয়েছে রোমানিয়া উত্তর-পূর্ব এবং দক্ষিণে ইউক্রেন রয়েছে। এটি কৃষি প্রধান একটি দেশ। দেশের প্রধান ফসল গুলোর মধ্যে হল গম, ভুট্টা, সূর্যমুখী, আঙ্গুর, আখ ইত্যাদি। দেশটিতে খনিজ সম্পদের মধ্যে রয়েছে কয়লা, প্রাকৃতিক গ্যাস, লোহা, তেল ইত্যাদি।

মালদোভা কাজের ভিসা

মালদোভা কাজের ভিসা সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে আজকের আর্টিকেল সাজানো হয়েছে। আজকে আর্টিকেল থেকে আপনারা বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে পারবেন। যে সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন তা হলঃ-
মালদোভা কাজের বেতন সম্পর্কে, মালদোভা যেতে কত টাকা লাগে, মালদোভা ভিসা খরচ কত, মালদোভা যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হতে পারে, মালদোভা কোন মহাদেশে অবস্থিত, মুদ্রার মান কেমন এ ছাড়াও আরো অন্যান্য তথ্য জানতে পারবেন। তো চলুন এ দেশটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

মালদোভা কাজের বেতন কত

মালদোভাতে আপনারা কাজ করে প্রতি মাসে আয় করতে পারবেন চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা। তবু আপনাদের অনেক কাজ করতে হবে। আপনারা সঠিকভাবে কাজ না করলে আরো কম টাকা আয় করতে পারবেন। আপনারা যদি কোম্পানিতে সঠিকভাবে কাজ করেন সে ক্ষেত্রে আপনি ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা প্রতি মাসে ইনকাম করতে পারবেন। তবে জেনে রাখা উচিত বিভিন্ন কাজের ক্যাটাগরির উপর নির্ভর করে বেতন কম অথবা বেশি হতে পারে।

মালদোভা যেতে কত টাকা লাগে

আপনারা যদি এই দেশটিতে বাংলাদেশ থেকে যেতে চান সেক্ষেত্রে আপনাদের খরচ হবে প্রায় পাঁচ থেকে সাড়ে ছয় লক্ষ টাকা। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে সামান্য পরিমাণ বেশি অথবা কম খরচ হতে পারে। আপনারা এই দেশটি থেকে অন্য দেশে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন।
অথবা আপনারা এই দেশ টিতে যদি তিন থেকে চার বছর থাকেন তবে আপনারা সেখানকার নাগরিকদের মতো সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যেহেতু এটা একটি উন্নত দেশ সুতরাং এখানে আপনারা ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। এছাড়াও আরো অনেক রকম সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।

মালদোভা যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়

মালদোভা যেতে হলে আপনাদের বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টসগুলো অন্যান্য দেশে যাবার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। আপনারা যদি এই সকল ডকুমেন্টগুলো সংগ্রহ না করেন অথবা জমা না দেন তবে আপনারা এ দেশটির ভিসা পাবেন না। আর ভিসা না পেলে আপনি এই দেশটিতে যেতে পারবেন না। ডকুমেন্টস এর ভুলের কারণে আমরা ভিসা পায় না। সুতরাং ডকুমেন্টস অবশ্যই আমরা সঠিকভাবে সাবমিট করব। চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হতে পারে।
  • প্রথমত একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হয়। পাসপোর্টটিতে সর্বনিম্ন মেয়াদ থাকতে হয় ৬ মাস।
  • পাসপোর্টে সর্বনিম্ন দুইটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন এবং ভোটার আইডি কার্ডের প্রয়োজন হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট
  • মেডিকেল রিপোর্ট
  • করোনার টিকা কার্ড
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি, অবশ্যই ব্যাকগ্রাউন্ড সাদা রাখতে হবে
  • ছবিতে কোনরকম মাক্স অথবা কালো চশমা অথবা টুপি ব্যবহার করা যাবে না।
  • স্পষ্ট ভাবে মুখমণ্ডল বোঝা যেতে হবে
আরো জানতে ভিজিট করুন

মালদোভা তে কি কি কাজ রয়েছে

মালদোভা গিয়ে আপনারা বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে পারবেন। আপনারা যারা এই দেশটিতে যেতে চান তারা মূলত জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন সেখানে গিয়ে কেমন ধরনের কাজ পাওয়া যায় বা করা যায়। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক সেখানে গিয়ে আপনারা কি কি কাজ করবেন।
  1. গার্মেন্টস সেক্টর
  2. সুইং অপারেটার
  3. মার্চেন্ডাইজার
  4. প্রোডাকশন ম্যানেজার
  5. হেলপার
  6. কনস্ট্রাকশন সেক্টর
  7. সাটারিং কার্পেন্টার
  8. স্টিল পিকচার
  9. ম্যাসন
  10. ইলেকট্রিশিয়ান
  11. প্লাম্বার
  12. পেইন্টার
  13. রেস্টুরেন্ট
  14. ড্রাইভিং
  15. ক্লিনার
  16. হাউসকিপিং
  17. ওয়েটার
  18. কুক

বাংলাদেশীদের জন্য মালদোভাতে কোন কোন কাজের চাহিদা সবচেয়ে বেশি

বাংলাদেশিরা শুধুমাত্র মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ওমান শুধু এই দেশগুলোতে যায় না। বাংলাদেশেররা বর্তমান সময়ে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে রয়েছে। আপনারা যারা এই দেশে যাবেন তারা এখানে গিয়ে যে সকল কাজগুলো করবেন তার মধ্যে কোন কাজগুলো চাহিদা সবচেয়ে বেশি তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো। আপনারা এই কাজগুলো শিখে এই দেশে গিয়ে খুব ভালোভাবে এ কাজগুলো করতে পারবেন।
  • সুইং অপারেটর
  • কনস্ট্রাকশন সেক্টরে বিভিন্ন ধরনের কাজ যেমন,
  • মেশিন
  • সাটারিং কার্পেন্টার
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • প্লাম্বার
  • কুক
  • ওয়েটার
  • ক্লিনার
  • রেস্টুরেন্ট
  • স্টিল পিকচার
এছাড়া ও আরো অন্যান্য কাজেরও চাহিদা রয়েছে। তবে উল্লেখিত কাজগুলো চাহিদা বাংলাদেশী শ্রমিকদের ক্ষেত্রে বেশি রয়েছে। তারা এই সকল কাজগুলো নিয়ে বাংলাদেশ থেকে এদেশে কাজ করতে আসতে পারেন।
মালদোভা কাজের ভিসা | মালদোভা কাজের বেতন কত |

সম্পূর্ণ ভিসা প্রসেসের হতে কতদিন সময় লাগে

আপনি যদি এই দেশটিতে কাজের ভিসা নিয়ে যেতে চান সে ক্ষেত্রে সকল ভিসা প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে সময় লাগবে তিন থেকে চার মাস। এর মাঝে আপনার ভিসা সংক্রান্ত সকল কিছু সম্পন্ন হবে। তবে কিছু সময় বেশি এবং কম হতে পারে।

মালদোভা ভিসা খরচ কত

মালদোভা সম্পূর্ণ ভিসা প্রসেসিং খরচ এবং অন্যান্য যাবতীয় খরচ মিলে মোট ৫ থেকে ৬.৫ লক্ষ টাকা খরচ হবে। আমরা ইতিমধ্যে ওপরে উল্লেখ করেছি , মালদোভা যেতে কত টাকা লাগবে। মূলত সকল প্রসেসিং সম্পন্ন করে যেতে এত টাকা খরচ হবে। সুতরাং আমরা মালদোভা ভিসা খরচ এটাকে বলতে পারি।

FAQ

মালদোভা কোন মহাদেশে অবস্থিত?

উত্তরঃ– মালদোভা ইউরোপ মহাদেশে অবস্থিত।

মালদোভা এর রাজধানীর নাম কি?

উত্তরঃ– মালদোভা এর রাজধানীর নাম চিসিনাউ।

মালদোভার আয়তন কত?

উত্তরঃ– এই দেশটির আয়তন ৩৩ হাজার ৮৫১ বর্গ কিলোমিটার।

মালদোভার জনসংখ্যা কত?

উত্তরঃ– বর্তমানে মালদোভার জনসংখ্যা প্রায় ৩৪ লক্ষ ১৭ হাজার ২৬৪ জন (২০২৩)।

মালদোভা এর মুদ্রার নাম কি?

উত্তরঃ– মালদোভার মুদ্রার নাম লেয়ু।

মালদোভার এক টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা?

উত্তরঃ– মালদাভার এক মুদ্রা সমান বাংলাদেশের প্রায় ৯ টাকা।

Leave a Comment