মাল্টা কাজের ভিসা | মাল্টা যেতে কত টাকা লাগে | মাল্টায় কাজের বেতন কত |

মাল্টা ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত একটি দেশ। এই দেশটির পার্শ্ববর্তী দেশ রয়েছে ইতালি, লিবিয়া, তিউনিশা। মালটা ইউরোপীয় ইউনিয়নের সেনজেন ভুক্ত একটি দেশ। এই দেশটির আয়তন ৩১৬ বর্গ কিলোমিটার। এই দেশটি তৈরি হয়েছে মূলত তিনটি প্রধান দ্বীপ একত্রিত হয়ে। মাল্টার জনসংখ্যা প্রায় ৪ লক্ষ ৫০ হাজার। দৃষ্টির অর্থনৈতিক দিক থেকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ রাখে নৌ বাণিজ্য শিপমেন্ট এবং বিদ্যুৎ সরঞ্জাম ও টেক্সটাইল শিল্প। এই দেশটির মাথাপিছু আয় মোট জিডিপির ৩০ হাজার ৫৫৫ ডলার। এ দেশটির মুদ্রার নাম ইউরো। ১ ইউরো সমান বাংলাদেশি মুদ্রায় ১১৩ টাকা

মাল্টা ভিসা আপডেট

ভিএফএস গ্লোবাল এই প্রতিষ্ঠানটি মাল্টা সরকার বাংলাদেশীদের ভিসা আবেদনের প্রক্রিয়া সহ আরো অন্যান্য সেবা নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রয়োজনীয় অনুমোদন প্রদান করেছে বলে জানা গেছে। ২০২৩ সালের আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশের নাগরিকরা ঢাকার এই প্রতিষ্ঠান এর মাধ্যমে ভিসার জন্য আবেদন জমা নেবেন। আপনারা যারা মাল্টা যেতে আগ্রহী তারা মাল্টা ভিসা সম্পর্কে আপডেট পেয়ে গেছেন।


মাল্টা কাজের ভিসা ২০২৩

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ থেকে অনেকেই অনেক দেশে কাজ করতে যাচ্ছেন। তেমনি ভাবে অনেকেই মাল্টাতে কাজ করতে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করছেন। আজকের আমাদের এই কনটেন্টে মাল্টা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। মাল্টা সম্পর্কে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আমাদের কনটেন্ট থেকে পেয়ে যাবেন। সুতরাং আপনি যদি মাল্টা সম্পর্কে জানতে চান তাহলে মনোযোগ সহকারে পুরো কনটেন্ট পড়ুন।


যেমন, মাল্টা কাজের ভিসা কিভাবে পাবেন। মাল্টা যেতে কত টাকা খরচ হয়। মাল্টায় কাজের বেতন কত। মালটা যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন এরকম আরও অনেক তথ্য আমাদের এখান থেকে পেয়ে যাবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক মালটা সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য।

মাল্টা যেতে কত টাকা লাগে?

মাল্টায় যদি আপনি কাজ করার জন্য যেতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে প্রায় পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকা। আপনি যদি ভ্রমণ করার উদ্দেশ্যে যান তাহলে আপনার খরচ হবে সর্বনিম্ন 2 লক্ষ টাকা। কিছু কিছু ক্ষেত্রে কিছু টাকা কম বেশি হতে পারে। বাংলাদেশে অনেক এজেন্সি রয়েছে যে সকল এজেন্সি গুলো প্রতিনিয়ত বাংলাদেশ থেকে অন্যান্য দেশে মানুষ প্রেরণ করে থাকছেন। আপনিও এই সকল এজেন্সি গুলোর মাধ্যমে মাল্টা যেতে পারেন। তবে যাবার পূর্বে আপনারা এজেন্সি সম্পর্কে সঠিক তথ্য জেনে নেবেন।



মাল্টায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

আপনারা যারা মাল্টায় কাজ করার জন্য যেতে আগ্রহী তারা অনেকেই জানতে চান মাল্টায় কোন কোন কাজের চাহিদা বেশি থাকে সে সম্পর্কে। কেননা মাল্টায় গিয়ে আপনিও ঠিক এমনই কাজ করবেন তার জন্য। মাল্টায় যে সকল কাজগুলো চাহিদা বেশি তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • ড্রাইভার
  • হাউসকিপিং
  • ফুড ডেলিভারি
  • কিচেন পোর্টার
  • মেইনটেনেন্স ওয়ার্কার
  • মাসেজ থেরাপিস্ট
  • ওয়েটার
  • শেফ অ্যাসিস্ট্যান্ট
  • সেফ
  • কনস্ট্রাকশন
  • জেনারেল লেবার
  • অ্যাসিস্ট্যান্ট প্লাম্বার
  • এসি টেকনিশিয়ান


মূলত এই সকল কাজগুলোতে দ্রুত মানুষ নিচ্ছে মাল্টা সরকার। এই সকল কাজগুলো বাদে ও আরো অন্যান্য কাজ রয়েছে যে সকল কাজগুলোর চাহিদা ও তুলনামূলকভাবে ভালো রয়েছে।



মাল্টায় কাজের বেতন কত?

মাল্টায় কাজের বেতন দেয়া হয় অনেক বেশি অন্যান্য দেশের তুলনায়। মাল্টা একজন নাগরিক কাজ করে মাসিক আয় করতে পারবেন প্রায়ই 70,000 থেকে এক লক্ষ টাকা। কাজের ধরনের ওপর নির্ভর করে বেতন কম বেশি হতে পারে তবে এভারেজ বলা যায় প্রায় একজন শ্রমিক মাসে আয় করতে পারেন 70 থেকে 80 হাজার টাকা।

মাল্টা যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন হয়

মাল্টা যেতে হলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। আমাদের সকল ক্ষেত্রেই বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয়ে থাকে যে সকল ডকুমেন্টগুলো ছাড়া আমরা কোন কাজ করতে পারি না। তেমনি ভাবে আপনি যদি মাল্টা যেতে চান তাহলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টস গুলো ছাড়া আপনি মাল্টা ভিসা পাবেন না। যেই ডকুমেন্টগুলো মাল্টা যেতে প্রয়োজন তার নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • মাল্টা যেতে হলে অবশ্যই আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  • পাসপোর্টে অবশ্যই কমপক্ষে ছয় মাসের বেশি মেয়াদ থাকতে হবে।
  • পাসপোর্টে কমপক্ষে 2 টা ফাঁকা পেজ থাকতে হবে।
  • ভোটার আইডি কার্ডের প্রয়োজন হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন এর প্রয়োজন হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে।
  • মেডিকেল রিপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • করোনা টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে।


মূলত এই সকল ডকুমেন্ট গুলো প্রয়োজন হয় সকল দেশে যাবার ক্ষেত্রে। তেমনি মাল্টা যেতেও এই সকল ডকুমেন্ট গুলোর প্রয়োজন হয়ে থাকে। যদি আরো অন্যান্য তথ্য প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি যে এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন সেখান থেকে জানতে পারবেন অথবা যে কোম্পানির মাধ্যমে যাবেন সেখান থেকে জেনে নিতে পারবেন বা আপনাকে বলে দেয়া হবে।


মাল্টা কাজের ভিসা কোথায় থেকে পাওয়া যায়?

অনেকে রয়েছেন যারা মাল্টা কাজের ভিসা নিয়ে যেতে চান। কিন্তু অনেকেই জানেন না কাজের ভিসা কোথায় এবং কিভাবে পাওয়া যায়। যে কারণে অনেকেই ইউটিউব অথবা গুগলে বা অন্য কারো মাধ্যমে জানতে চেষ্টা করেন। বাংলাদেশের যে সকল এজেন্সি রয়েছে সেই সকল এজেন্সি গুলোর মাধ্যমে আপনি মাল্টা ভিসা পাবেন।


মাল্টা কাজের ভিসা বাংলাদেশ থেকে পাওয়া সম্ভব। আমিও প্রথমে একটি প্রতিষ্ঠান নাম উল্লেখ করেছি সেটি ঢাকায় অবস্থিত। আপনি মাল্টা কাজের ভিসার জন্য আবেদন জমা দিতে পারেন।

মাল্টা ভিসা চেক করার নিয়ম

আপনারা হয়তো এখন সকলেই জানেন অনলাইনের মাধ্যমে সকল তথ্য পাওয়া সম্ভব। তেমনি আপনি চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে আপনি আপনার ভিসা চেক করতে পারবেন সেটা যে দেশে হোক না কেন। অনলাইনের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মালটা ভিসা চেক করতে পারবেন।


ভিসা চেক করার জন্য আপনাকে কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে ধাপগুলো নিচে দেওয়া হল।

  • আপনারা গুগোল এ গিয়ে মাল্টা ভিসা ট্রাকিং লিখে সার্চ দিবেন।
  • সার্চ দেওয়ার পরে আপনার কাছে অনেক গুলো ওয়েবসাইট জন্য আসবে।
  • আপনি মাল্টা ভিসা ইনফর্মেশন এমন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন।
  • ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনি ট্রাক ইউর অ্যাপ্লিকেশন নামে একটি অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করবেন।
  • তারপর আপনাকে ওয়েবসাইটে নিয়ে যাবে এবং আপনার কাছ থেকে রেফারেন্স নাম্বার এবং ডেট অফ বার্থ চাইবে।
  • সেখানে আপনি নাম্বার এবং ডেট অফ বার্থ দিয়ে সাবমিট অপশনে ক্লিক করবেন।

সৌদি আরব কাজের ভিসা | সৌদি আরবে কাজের বেতন কত | সৌদি আরব যেতে কত টাকা লাগে |


বাংলাদেশীদের যেভাবে সুযোগ হচ্ছে মাল্টায়

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ থেকে অনেকেই বিভিন্ন দেশে কাজ করার জন্য যাচ্ছেন। মাল্টাতে ও বর্তমান সময়ে অনেক বাংলাদেশী রয়েছেন তারা বিভিন্ন কোম্পানিতে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কাজ করে প্রতি মাসে ভালো অর্থ উপার্জন করেছেন। মালটাতে বাংলাদেশের আর যেভাবে সুযোগ পাচ্ছেন তা নিচে উল্লেখ করা হলো।


আপনারা অনেকেই হয়তো অবগত রয়েছেন যে মাল্টা একটি উন্নত রাষ্ট্র। এখানে অন্যান্য দেশের তুলনায় শ্রমিকরা কাজ করে একটু বেশি টাকা অর্জন করে থাকে। বাংলাদেশ থেকে এখন খুব সহজেই আপনি চাইলে মাল্টায় কাজ করার জন্য যেতে পারবেন। এটা বাংলাদেশিদের জন্য অনেক খুশির খবর। মূলত বাঙালিরা সেখানে গিয়ে খুব ভালো বেতনের কাজ করে থাকেন এটি বাংলাদেশের জন্য একটি সুযোগ।

মাল্টা ভিসা আবেদন

এখন আপনারা বাংলাদেশ মাল্টা ভিসা আবেদন খুব সহজেই করতে পারবেন। ঢাকায় আপনি চাইলে এজেন্সির মাধ্যমে মাল্টা ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। মাল্টায় যাবার জন্য ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠান তৈরি হয়েছে। যেখানে আপনি আপনার আবেদন জমা দিতে পারেন। এই সম্পর্কে সর্বপ্রথমে আলোচনা করা হয়েছে সেখান থেকে দেখে নিতে পারেন।


বাংলাদেশ থেকে মাল্টা যাওয়ার উপায়

আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করব বাংলাদেশ থেকে মাল্টা যাওয়ার উপায় সম্পর্কে। যারা মাল্টায় কাজ করার জন্য যেতে চান তাদের এটা জানা জরুরী। মালটা যাওয়ার উপায় সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত তথ্যও তুলে ধরা হলো।


বাংলাদেশ থেকে মাল্টা যাওয়ার উপায় অনেক রকম রয়েছে। আপনার আত্মীয় যদি মাল্টায় থাকে তাহলে আপনি তার মাধ্যমে যেতে পারবেন। আপনি দালাল ধরে মাল্টায় যেতে পারবেন। আপনি চাইলে অনলাইনে মাল্টায় কোন কাজ সংগ্রহ করে সেই কোম্পানির সাহায্যে আপনি খুব সহজে মাল্টা যেতে পারবেন। আপনারা চাইলেই এজেন্সির সাহায্যে খুব সহজে মাল্টায় যেতে পারবেন। এইসকল মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মাল্টা যেতে পারবেন।

বাংলাদেশিরা মাল্টায় গিয়ে কি কি কাজ করেন

  • ফুড ডেলিভারি
  • হোটেলের কাজ
  • ক্লিনার
  • সুপার শপের কাজ
  • ফুড প্যাকেজিং
  • কারখানার শ্রমিক

বাংলাদেশের মাল্টায় গিয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ করেন। বর্তমান সময়ে মালদাতে অনেক বাংলাদেশী রয়েছেন যারা একেক জন একেক রকম ক্যাটাগরিতে কাজ করেন। বাঙালিরা মাল্টায় গিয়ে যে সকল কাজ করে তা নিচে দেওয়া হল :


আরো জানতে ভিজিট করুন

Leave a Comment