রোমানিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2022 | রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে | রোমানিয়ায় কাজের বেতন কত |

রোমানিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2022 | রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে | রোমানিয়ায় কাজের বেতন কত |

আসসালামু আলাইকুম আশা করি আপনারা সকলেই ভাল রয়েছেন। আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করবো রোমানিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে বিস্তারিত তথ্য। 

রোমানিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2022

প্রিয় পাঠক রোমানিয়া এমন একটি দেশ যেখানে, বর্তমান সময়ে যে শ্রমিক গুলো বিদেশে যাচ্ছে তার সিংহভাগ হলো রোমানিয়ার প্রবাসী। কারণ আপনারা জানেন যে সম্প্রীতি রোমানিয়া দেশটি ইউরোপের সেনজেনভুক্ত তালিকায় চলে আসছে। এছাড়াও রোমানিয়া হলো ইউরোপে প্রবেশ করার প্রবেশদ্বার। যার কারণে সবার মধ্যে একটি আগ্রহ থাকে রোমানিয়া ওয়ার্ক পারমিট ভিসা পাবার জন্য।

রোমানিয়া কাজের ভিসা

রোমানিয়াতে তে যে কাজগুলো রয়েছে তা বাঙ্গালীদের জন্য খুবই আরামদায়ক। সাধারণত আমরা বাঙালিরা যে কাজগুলো পছন্দ করি এবং দৈনন্দিন যে কাজগুলো করে অভ্যস্ত ঠিক সেরকম কাজও রয়েছে রোমানিয়াতে। তবে আপনি যদি মনে করেন আপনি বিশেষ কোনো কাজে দক্ষ সে ক্ষেত্রেও আপনার জন্য রয়েছে বিশেষ বিশেষ কিছু উচ্চতর কাজ। আপনি যদি এ সকল কাজ করতে পারেন তাহলে সাধারণ কাজগুলোর থেকে অধিক পরিমাণে আয় করতে পারবেন।

রোমানিয়া যাব কিভাবে

আপনারা অনেকেই রোমানিয়া যেতে চান। তাই আপনারা জানতে চান রোমানিয়া যাবেন কীভাবে সে সম্পর্কে। চলুন জেনে নিই সে সম্পর্কে।

আপনারা খুব সহজেই এজেন্সির মাধ্যমে রোমানিয়া যেতে পারেন। অথবা আপনার কোন আত্মীয় যদি রোমানিয়া থেকে থাকে তাদের মাধ্যমে আপনি রোমানিয়া যেতে পারেন। অনলাইনে রোমানিয়া জবে এপ্লাই করে টিকতে পারলে সে কোম্পানির মাধ্যমে আপনি রোমানিয়া যেতে পারেন।
স্টুডেন্ট ভিসায় যেতে পারেন। বিজনেস ভিসা নিয়ে রোমানিয়া যেতে পারেন। আরো অনেক রকম ভাবে আপনারা চাইলে রোমানিয়া যেতে পারবেন।
তবে যারা স্টুডেন্ট ভিসায় রোমানিয়ায় যাওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে তাদের জন্য সরকারিভাবে বিশেষ কিছু সুবিধা রয়েছে। আপনারা যদি এ বিষয়ে জানতে আগ্রহী হন তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন আমরা পরবর্তীতে এ বিষয় নিয়ে একটি কন্টেন্ট প্রকাশ করব।

রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে

আপনারা অনেকেই রয়েছেন যারা রোমানিয়ায় কাজ করতে যেতে চান। যাবার পূর্বে আপনারা সকলে জানতে চান রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে সে সম্পর্কে। চলুন জেনে নেই সে সম্পর্কে।

রোমানিয়া যেতে খরচ হয় প্রায় ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকার মতো। দালালের মাধ্যমে এজেন্সির মাধ্যমে গেলে খরচ হয়ে থাকে প্রায় থেকে ৭ লক্ষ টাকা ১০  লক্ষ টাকা এমন। তবে লক্ষ্য রাখবেন যে যার মাধ্যমে ভিসা প্রক্রিয়া করেন না কেন ভিসা সম্পূর্ণরূপে চেক করে নিতে হবে এবং কোন বিষয়ে সন্দেহ থাকলে তার দ্রুত কর্তৃপক্ষকে জানাবেন সেই সাথে কোন বিষয়ে যদি সমস্যা করেন তাহলে আমাদের জানাতে পারেন।

রোমানিয়ায় কাজের বেতন কত

আপনারা যারা রোমানিয়া যেতে চান তারা সকলেই জানতে চান রোমানিয়ায় কাজের বেতন কত সে সম্পর্কে। চলুন জেনে নেই রোমানিয়া কাজের বেতন কত সে সম্পর্কে বিস্তারিত।

রোমানিয়ায় একজন শ্রমিকের মাসিক ইনকাম প্রায়  ৫০০  ইউরো এর মত। যা বাংলাদেশী টাকায় ৫০০০০ প্রায়। তবে অনেক সময় কিছু কোম্পানি রয়েছে যে কোম্পানিগুলোতে বেতন কিছুটা কম হতে পারে, তবে যদি আপনি সুযোগ পান সেক্ষেত্রে কোম্পানিতে কাজ না করে মালিকানাধীন কাজ করার চেষ্টা করবেন।

রোমানিয়ার ভিসার দাম কত

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে রোমানিয়া যেতে চান তাহলে আপনার ভিসার দাম বা খরচ হবে প্রায় ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকার মত। রোমানিয়াতে যেহেতু অনেক রকমের ভিসা বর্তমানে চালু রয়েছে তাই আপনি কোন ধরনের ভিসা সংগ্রহ করতে চাচ্ছেন সেটার উপর আলাদা আলাদা খরচ হবে। তবে স্বাভাবিকভাবে বলা যায় পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকার মধ্যেই রোমানিয়া ভিসা প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা সম্ভব।

রোমানিয়ায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

আপনারা যারা রোমানিয়া যেতে চান তারা জানতে চান কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে। চলুন জেনে নেই রোমানিয়ায় কোন কাজের চাহিদা বেশি।

  • কনস্ট্রাকশন
  • ড্রাইভিং
  • কনস্ট্রাকশন
  • প্যাকেজিং
  • ক্লিনার
  • মেকানিক
  • ইলেকট্রিশিয়ান

রোমানিয়ায় বাঙালিরা কি কি কাজ করেন

আপনারা যারা রোমানিয়ায় কাজ করার জন্য যেতে চান তারা জানতে চান রোমানিয়ায় বাঙালিরা কি কি কাজ করে সে সম্পর্কে। চলুন জেনে নিই রোমানিয়া গিয়ে বাঙালিরা কি কি কাজ করেন।

  • ওয়েল্ডারের কাজ
  • কনস্ট্রাকশন এর কাজ
  • ইলেকট্রিশিয়ান এর কাজ
  • ফ্যাক্টরির কাজ
  • হাউস কিপারের কাজ
  • ওয়্যারহাউজ এর কাজ
  • প্যাকেজিং এর কাজ
  • সেলুনের কাজ
  • গাড়ির মেকানিক এর কাজ
  • ড্রাইভিং

রোমানিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন

আপনারা যারা রোমানিয়ায় যেতে চান তাদের সকলের জানা উচিত রোমানিয়া যেতে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন সে সম্পর্কে। কেননা ডকুমেন্ট গুলোর কারণে অনেক সময়ই ভিসা পায় না অনেকেই। সে কারণে ডকুমেন্টগুলো প্রতি সকলের জ্ঞান থাকা জরুরি। যেন কোনো প্রকার ভুল না হয়। চলুন জেনে নেই কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন সে সম্পর্কে।

  • অবশ্যই আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  • তাতে কমপক্ষে ছয় মাসের বেশি মেয়াদ থাকতে হবে।
  • পাসপোর্টে অবশ্যই ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।
  • সদ্য তোলা ছবির প্রয়োজন হবে।
  • এনআইডি কার্ড এর প্রয়োজন হবে।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • মেডিকেল রিপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন।
  • করোনার টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে।

মূলত এ সকল ডকুমেন্ট গুলো প্রয়োজন হয় রোমানিয়া যাবার ক্ষেত্রে। যদি আনুষাঙ্গিক আরো ডকুমেন্টের প্রয়োজন হয় তাহলে আপনি যে মাধ্যমে রোমানিয়া যাবেন তারা আপনাকে জানিয়ে দেবে। 

রোমানিয়ায় কত ঘন্টা কাজ করতে হয়

আপনারা যারা রোমানিয়া যেতে চান তারা জানতে চান রোমানিয়ায় কত ঘন্টা কাজ করতে হয় সে সম্পর্কে। রোমানিয়ায় ৮ থেকে ১০ ঘন্টা কাজ করতে হয়। কিছু কিছু কোম্পানিতে ৮ ঘন্টা এবং কিছু কিছু কোম্পানিতে ১০ ঘন্টা কাজ করতে হয়।

রোমানিয়া ওভারটাইম কাজ

রোমান্টিক কি এক কাজের পাশাপাশি অনেকে চায় অতিরিক্ত কিছু ইনকাম করার। সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছুটা অভিজ্ঞ হতে হবে এবং আপনি যে কাজ করছেন সে কাজের উপর নিজের স্কিল থেকে আরও বেশি ডেভলপ করতে হবে। এবং রোমানিয়াতে প্রথম অবস্থায় ওভারটাইম কাজের সুযোগ পাওয়া না গেলেও তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে আপনি ওভারটাইম কাজ করার সুযোগ পাবেন। এক্ষেত্রে একজন নাগরিক সাপ্তাহিক সর্বোচ্চ ২৫ ঘন্টা ওভারটাইম কাজ করতে পারবে।

Leave a Comment