সুইডেন ওয়ার্ক ভিসা, বেতন, খরচ (আপডেট তথ্য ২০২৪)

সুইডেন ওয়ার্ক ভিসা, বেতন, খরচ (আপডেট তথ্য ২০২৩)
প্রিয় পাঠক বন্ধুরা আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে সুইডেন কাজের ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। আপনারা যারা সুইডেন সম্পর্কে জানতে আগ্রহী তারা পুরো কনটেন্ট জুড়েই আমাদের সঙ্গে থাকুন। কেননা পুরো কনটেন্টে শুধুমাত্র সুইডেনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। তাই সুইডেন সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য জানতে চাইলে মনোযোগ সহকারে কনটেন্টটি পড়ুন।

সুইডেন কাজের ভিসা ২০২

সুইডেন কাজের ভিসা ২০২৪ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য আজকের এই কনটেন্টে তুলে ধরা হয়েছে। আজকের এই কনটেন্ট থেকে আপনারা জানতে পারবেন সুইডেন কাজের ভিসা কিভাবে পাবেন, কত টাকা লাগে, বেতন কত, কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়, সুইডেন কিভাবে যাবেন, বাঙালিরা সেখানে কি কি কাজ করেন আরো অন্যান্য বিষয় সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য। চলুন এই সংক্রান্ত তথ্যগুলো জেনে আশি।

সুইডেন পরিচিতি

সুইডেন ইউরোপ মহাদেশের একটি রাষ্ট্র। এই দেশটির রাজধানীর নাম স্টকহোম এটা শুধু রাজধানীর নয় সুইডেনের বৃহত্তম নগরী ও। দেশটির আয়তন প্রায় ৪ লক্ষ ৫০ হাজার ২৯৫ বর্গ কিলোমিটার। এ দেশটি ইউরোপের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ। এই দেশটিতে মোট জনসংখ্যা রয়েছে প্রায় ১ কোটি ২ লক্ষ ৮০ হাজার ৭৭২ জন

এ দেশটিতে সরকারি ভাষা হিসেবে ব্যবহার করা হয় সুয়েডিয় ভাষা। স্টকহোম কে সুইডেনের ভেনিস অফ দ্যা নর্থ বলা হয়। এ দেশটিকে ইউরোপের স”মিল বলা হয়ে থাকে। সুইডেন হলো পৃথিবীর প্রথম কল্যাণমূলক রাষ্ট্র। দেশটির বৃহত্তম শহর গুলি হলঃ-স্টকহোম, গোথেনবার্গ, মালমো।

সুইডেনের ভিসা খরচ কত

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে সুইডেন যেতে চান তাহলে আপনার মোট খরচ হবে পাঁচ থেকে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা। এই টাকার মধ্যে আপনি আপনার সকল প্রসেসহ বাংলাদেশ থেকে সুইডেনে পৌঁছা পর্যন্ত হয়ে যাবে। আপনি যে এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন সেই এজেন্সি থেকে আপনারা পূর্বে জেনে নিতে পারবেন যে আপনার কত টাকা খরচ হবে বা হতে পারে।

তবে এজেন্সি সম্পর্কে সকল খোঁজখবর নিয়ে তারপরে ভিসার জন্য বা অন্যান্য ক্ষেত্রে টাকা প্রদান করবেন। তবে আপনারা চেষ্টা করবেন দালালদের কাছ থেকে দূরে থাকার। তাদের মাধ্যমে গেলে আপনাদের খরচ হবে প্রায়ই এক থেকে দুই লক্ষ টাকা বেশি। সুতরাং তাদের থেকে সতর্ক থাকাই শ্রেয়।

সুইডেনে কাজের বেতন কত

আপনারা যদি বাংলাদেশ থেকে সুইডেন গিয়ে যেকোনো কাজ করেন সে ক্ষেত্রে আপনারা পরিবেশে সর্বনিম্ন আয় করতে পারবেন ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা। প্রথম অবস্থায় এমন আয় করবেন তবে  অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে আয় ও বৃদ্ধি পাবে।

বিভিন্ন কাজের ক্যাটাগরি অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন রকম বেতন হয়ে থাকে। কোম্পানি ভেদেও বেতন কমবেশি হয়ে থাকে। সুইডেনে কাজ করে একজন শ্রমিক সর্বোচ্চ আয় করতে পারেন ১ থেকে দেড় লক্ষ টাকা। আপনি যদি সুইডেন গিয়ে কাজ করতে চান তাহলে আপনি প্রথম অবস্থায় ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা বেতন পাবেন।

বাংলাদেশ থেকে সুইডেন কোন কোন ক্যাটাগরির ভিসা পাওয়া সম্ভব

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে সুইডেন যেতে চান তাহলে আপনি বেশ কয়েক রকম ভিসার ক্যাটাগরির পদ্ধতির মাধ্যমে যেতে পারবেন। যে সকল ভিসা ক্যাটাগরির মাধ্যমে আপনি যেতে পারবেন তার নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
  • বিজনেস ভিসা
  • স্টুডেন্ট ভিসা
  • টুরিস্ট ভিসা
  • ফ্যামিলি ভিসা

উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো ছাড়াও আরো অন্যান্য ক্যাটাগরির ভিসা রয়েছে।

সুইডেন যেতে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন

সুইডেন যেতে হলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। শুধু সুইডেন যেতেই এ সকল ডকুমেন্টসগুলো প্রয়োজন হয় তা নয়। যে কোন দেশে যাবার ক্ষেত্রেই ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হয়। যে সকল ডকুমেন্টগুলো বৈধ হতে হয় এবং মূল্যবান হতে হয়।

বিভিন্ন সময় ডকুমেন্টস এর ভুলের কারণে ভিসা পাওয়া সম্ভব হয় না। তাই ডকুমেন্টস এর দিকে আমাদের সর্তকতা অবলম্বন করা উচিত। এই দেশটিতে যেতে কি কি ডকুমেন্ট লাগে তা নিচে উল্লেখ করা হলো।
  1. প্রথমত আপনার ছয় মাস বা তার বেশি মেয়াদী একটি পাসপোর্ট প্রয়োজন হবে।
  2. সদ্য তোলা দুই কপি ছবি প্রয়োজন হবে।
  3. জাতীয় পরিচয় পত্র এবং জন্ম নিবন্ধন এর প্রয়োজন রয়েছে।
  4. শেষ ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে। অবশ্যই ব্যাংক একাউন্টে লেনদেন থাকতে হবে।
  5. মেডিকেল রিপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  6. পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।
  7. আপনি যদি চাকরি পেয়ে থাকেন সেখানকার নিমন্ত্রণ পত্র।
  8. কাজের দক্ষতা অনুযায়ী সার্টিফিকেট।

মূলত এ দেশে যাবার ক্ষেত্রে এই ডকুমেন্টগুলো প্রয়োজন হয়। পরবর্তীতে আরও অন্যান্য ডকুমেন্টস দেখানোর ও প্রয়োজন হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনি যে এজেন্সের মাধ্যমে যাবেন তারা আপনাদেরকে বিস্তারিত বিষয় বুঝিয়ে বা জানিয়ে দেবেন।

সুইডেন ভিসা কিভাবে পাব

সুইডেন ভিসা কিভাবে পাব

সুইডেন ভিসা আপনারা যে কোন এজেন্সি এর মাধ্যমে খুব সহজে পেতে পারেন। বাংলাদেশ থেকে বর্তমান সময়ে অনেক এজেন্সি অন্যান্য দেশের মানুষ প্রেরণ করে থাকছেন। সেই সকল এজেন্সি গুলোর মাধ্যমে আপনারা ভিসা প্রসেস প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে বাংলাদেশ থেকে সুইডেন যেতে পারেন। বা সুইডেন ভিসা পেতে পারেন।

বাংলাদেশের ঢাকায, মহাখালীতে যে এম্বাসি বা বুয়েসেল রয়েছে সেই এমব্যাসির মাধ্যমে আপনারা সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে নিতে পারেন। এরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন রকম ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে মানুষ প্রেরণ করেন।

বাঙালিরা সুইডেন গিয়ে কি কি কাজ করেন

বাংলাদেশিরা বর্তমান সময়ে বিভিন্ন দেশে কাজ করার জন্য যাচ্ছেন। অনেক বাংলাদেশী রয়েছে যারা বর্তমান সময়ের সুইডেনে কর্মরত অবস্থায় রয়েছেন এবং বর্তমান সময়ে ও কাজের জন্য যাচ্ছেন। সুইডেনে যারা বর্তমান সময়ে কাজ করছেন তারা কি কি কাজ করেন তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • ড্রাইভিং
  • ক্লিনার
  • কন্সট্রাকশন
  • রেস্টুরেন্ট
  • ফ্যাক্টরি
  • হোটেল
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • কনস্ট্রাকশন ম্যানেজার

এছাড়াও বাংলাদেশীরা আরো অন্যান্য কাজও করে থাকেন। বিভিন্ন জন বিভিন্ন রকম কাজ করে থাকেন সুইডেন গিয়ে।

সুইডেনে কি কি কাজ পাওয়া যায়

সুইডেনে অনেক ধরনের কাজে রয়েছে যে সকল কাজগুলো তারা এবং বিভিন্ন দেশের কর্মীরা করে থাকেন। সুইডেনে যে সকল কাজগুলো বেশি পাওয়া যায় তার নিম্নে তুলে ধরা হলো। আপনি যদি এই সকল বিষয়গুলোতে অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে এদেশে কাজ করার জন্য যেতে পারেন।

  • ড্রাইভিং
  • ক্লিনার
  • হোটেল
  • রেস্টুরেন্ট
  • কনস্ট্রাকশন
  • ইলেকট্রিশিয়ান
  • ফ্যাক্টরি ইত্যাদি

সুইডেনের টাকার মান কেমন

বাংলাদেশের মুদ্রার চেয়ে সুইডেন এরমোদান মান বেশি। সুইডেন এর মুদ্রার নাম সুইডিশ ক্রোনা। ১ সুইডিস ক্রোনা সমান বাংলাদেশের বোঝাই ১০ টাকা ৪২ পয়সা। ১০০ সুইডিশ ক্রোনা সমান বাংলাদেশের মুদ্রায় ১ হাজার ৪৩ টাকা। সুতরাং আমরা বুঝতে পারছি সুইডেন এর টাকার মান কত।

লিথুনিয়া কাজের ভিসা, যাবার খরচ ও বেতন (সংক্রান্ত নতুন তথ্য ২০২৩)

Leave a Comment